• মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৪ আশ্বিন ১৪২৭  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

মদনের নৌকাডুবি : ময়মনসিংহের একই পরিবারের ৮ জনের মৃত্যু

  ময়মনসিংহ প্রতিনিধি

০৬ আগস্ট ২০২০, ০৯:৩৬
কক্সবাজার
একই পরিবারের ৮ জনের মৃত্যু

ময়মনসিংহ সদর উপজেলার চরসিরতা ইউনিয়নের একটি মাদ্রাসার ছাত্র-শিক্ষক মিলে ইঞ্জিনচালিত নৌকায় মিনি কক্সবাজার খ্যাত নেত্রকোনার মদন উপজেলার উচিতপুর এলাকায় হাওর ভ্রমণে নৌকাডুবিতে ময়মনসিংহের সিরতা ইউনিয়নের কোনাপাড়া গ্রামের একই পরিবারের ৮ জনের মৃত্যুর খবরে নিহতদের বাড়িতে শোকের মাতম চলছে।

একই পরিবারের নিহতরা হলেন, ময়মনসিংহ সদর উপজেলার ৫ নং সিরতা ইউনিয়নের কোনাপাড়া গ্রামের মাদ্রাসায়ে মারকাযুস সুন্নাহ মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা ও মাদ্রাসার মোহতামিম হাফেজ মাওলানা মাহফুজুর রহমান মেয়াজ উদ্দিন (৩৮), তার বড় ছেলে মাহবুবুর রহমান আসিফ (১৭), ছোট ছেলে মাহমুদুর রহমান (১৪), ভাগ্নে রেজাউল করিম (১৮), ভাতিজা মোঃ জুবায়ের হোসাইন (১৯), মোঃ মুজাহিদ মিয়া (১৪)। তারা সকলেই মাদ্রাসায়ে মারকাযুস সুন্নাহ মাদ্রাসার হেফজ বিভাগের শিক্ষার্থী। আর মাদ্রাসার মোহতামিম হাফেজ মাহফুজুর রহমান মেয়াজ উদ্দিনের ভাতিজী লুবনা আক্তার (১০) ও জুলফা আক্তার (৭)। তারা দু’জন ইসরাহুল বানাত মহিলা মাদ্রাসার শিক্ষার্থী। এ ঘটনায় হাফেজ মাহফুজুর রহমান মেয়াজ উদ্দিনসহ তার দুই ছেলে-ভাগ্নে ও ভাতিজাসহ একই পরিবারের সাত জনের মৃত্যুতে নিহতদের গ্রামের বাড়িতে গগণ বিদারী কান্নায় আকাশ-বাতাস ভারী হয়ে উঠছে।’

বুধবার (৫ আগস্ট) দুপুর পৌনে ১২টার দিকে মদনের উচিতপুরের সামনের হাওর গোবিন্দশ্রী রাজালীকান্দা এলাকায় এ নৌকাডুবির ঘটনা ঘটে।

ময়মনসিংহের সিরতার কোনাপাড়া এলাকার স্থানীয় এলাকাবাসী জানান, ময়মনসিংহ সদর উপজেলার ৫ নং সিরতা ইউনিয়নের কোনাপাড়া গ্রামের মাদ্রাসায়ে মারকাযুস সুন্নাহ মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা ও মাদ্রাসার মোহতামিম হাফেজ মাওলানা মাহফুজুর রহমান মেয়াজ উদ্দিন। একইসাথে তিনি ইসরাহুল বানাত মহিলা মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতাও।

স্থানীয় এলাকাবাসী আরো জানান, বুধবার (০৫ আগস্ট) সকালে ময়মনসিংহ সদর থানার ৫নং চরশিরতা ইউনিয়ন ও আটপাড়া তেলিগাতী থেকে প্রায় ৪৮ জন মানুষ ঘুরতে মিনি কক্সবাজার খ্যাত উচিতপুরে ঘুরতে আসেন। এর মধ্যে ময়মনসিংহের সদর ও গৌরীপুরসহ বিভিন্ন এলাকার ছিল ৩৮ জন। পরে নৌকায় ঘুরতে গিয়ে হাওরের উত্তাল ঢেউয়ে গোবিন্দশ্রী রাজালীকান্দা এলাকায় ইঞ্জিনচালিত নৌকাটি ডুবে যায়। পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা অনেক চেষ্টায় স্থানীয়দের নিয়ে ১৯ জনের লাশ উদ্ধার করে।

নৌকা ডুবিতে নিহত মাদ্রাসার মোহতামিম হাফেজ মাহফুজুর রহমানের ভগ্নীপতি আব্দুল কাইয়ুম বলেন, ‘ বুধবার সকালে পরিবারের সকল নিয়ে আনন্দ ভ্রমণে গিয়েছিল। কে জানত এটাই যে তাদের শেষ বিদায়। এ কথা বলতে বলতেই তিনি কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।’

নিহত মাদ্রাসার মোহতামিম হাফেজ মাহফুজুর রহমানের বোন ও নিহত ভাগ্নে রেজাউলের মা রেহেনা খাতুন বলেন, ‘ছেলে ছোট থাকতেই তার বাবা গেছেন। মামার বাড়িতে থেকেই রেজাউল হেফজ বিভাগে পড়াশোনা করত। এরপর কথা বলতে বলতেই তিনি জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন তিনি।’

সিরতা ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা মাহমুদ আল বলেন, ‘মোহতামিম হাফেজ মাহফুজুর রহমান দু’টি মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা, দুই মাদ্রাসায় ৪৫০ জন শিক্ষার্থী রয়েছে। তার মৃত্যুতে ৪৫০ জন শিক্ষার্থীর ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত হয়ে পড়েছেন। আমরা হারিয়েছি এক জন ভাল মানুষকে।’

৫ নং সিরতা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু সায়ীদ মুঠোফোনে বলেন, ‘কোনাপাড়া গ্রামের মাদ্রাসায়ে মারকাযুস সুন্নাহ মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা ও মোহতামিম হাফেজ মাহফুজুর রহমান মেয়াজ উদ্দিনের দুই ছেলে, এক ভাগ্নে, দুই ভাতিজা ও দুই ভাতিজীসহ ৮ জনের মৃত্যু হয়েছে।এছাড়াও এ ঘটনায় নিহত অন্যান্যরা হলেন, মাহমুদুর রহমান, শফিকুর রহমান, ইসা মিয়া, আজহারুল ইসলাম, মাহমুদ মিয়া, আসিক, সামাঅন, রেজাউল করিম, মোজাহিদ মিয়া, হামিদুল, সাইফুল ইসলাম রতন, জোবায়ের, জাহিদ, রাকিব, শফিকুল। এ ঘটনার পর পুরো গ্রামেই শোকের মাতম চলছে।’

তিনি আরও বলেন, আমি বর্তমানে নেত্রকোনা জেলার মদন উপজেলায় আছি। মদন থানা থেকে ১৩ জনের লাশ পাঠিয়েছি। দুই জনের লাশ পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে। একজন এখনো নিখোঁজ আছে বলেও জানান তিনি।’

আরও পড়ুন : নেত্রকোনার মদনে নৌকা ডুবে ১৭ জনের মৃত্যু

ময়মনসিংহ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘নিহত ১৭ জন ময়মনসিংহের বাসিন্দা। এর মধ্যে গৌরীপুর উপজেলার ২ জন, সদর উপজেলার সিরতা ইউনিয়নের ১৫ জন ও ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের ৩১ নাম্বার ওয়ার্ডের একজন। নিহত প্রত্যেককে প্রশাসনের পক্ষ থেকে ২০ হাজার টাকা ও বিরোধী দলীয় নেতা বেগম রওশন এরশাদের পক্ষ থেকে ৫ হাজার টাকা করে দেয়া হবে বলেও জানান তিনি।’

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: +8801721978664

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড