• শুক্রবার, ১৪ আগস্ট ২০২০, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৭  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

পৃথক ধর্ষণের ঘটনায় গ্রেপ্তার ২

  সাভার প্রতিনিধি, ঢাকা

১১ জুলাই ২০২০, ১৮:০৪
গ্রেপ্তার
গ্রেপ্তার (প্রতীকী ছবি)

পাওনা টাকা চাওয়ায় ইটভাটা শ্রমিকের স্ত্রীকে (১৯) গণধর্ষণ ও স্কুল পড়ুয়া (১৪) এক কিশোরীকে জোরপূর্বক ধর্ষণের অভিযোগে সাভারে দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। উভয় ঘটনায় সাভার মডেল থানা ও আশুলিয়া থানায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

এ ঘটনায় স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ভুক্তভোগী নারী ও কিশোরীকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে প্রেরণ করা হয়েছে।

শনিবার (১১ জুলাই) বিকালে ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন সাভার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এএফএম সায়েদ এবং আশুলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রিজাউল হক দিপু।

এর আগে শুক্রবার (১০ জুলাই) দুপুরে সাভারের ভাকুর্তা মোগরাকান্দা এলাকায় গণধর্ষণের শিকার হন ওই ইটভাটা শ্রমিকের স্ত্রী। একই দিন (শুক্রবার) রাতে নিজ বাড়িতে প্রকৃতির ডাকে সারা দিতে বাইরে বের হলে প্রতিবেশী গার্মেন্ট শ্রমিক যুবকের ধর্ষণের শিকার হন ওই স্কুল শিক্ষার্থী।

সাভারে ইটভাটা শ্রমিককে গণধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার ইটভাটা শ্রমিকদের সরদার আলাউদ্দিন (৪০) কুড়িগ্রাম জেলার ভুরুঙ্গামারী থানার মইদাম গ্রামের জহুর উদ্দিনের ছেলে। তবে এই মামলায় অভিযুক্ত জুয়েল, ওয়াহিদ ও শহিদুল এখনো পলাতক রয়েছেন।

এছাড়া আশুলিয়ায় কিশোরী ধর্ষণের ঘটনায় গ্রেপ্তার রাসেল (২৪) স্থানীয় একটি তৈরি পোশাক কারখানার শ্রমিক।

গণধর্ষণের ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার দুপুরে ভুক্তভোগী নারীর স্বামী উপজেলার ভাকুর্তা মোগরাকান্দা এলাকার একটি ইটভাটায় তার পাওনা বকেয়া মজুরির টাকা আনতে যান। এ সময় পাওনা টাকা চাওয়া ইটভাটার শ্রমিকদের সরদার আলাউদ্দিন, তার দুই সহযোগী ওয়াহিদ ও শহিদের সহযোগিতায় তাকে একটি বাগানের ভেতরে নিয়ে হাত-পা বেঁধে মারধর করে। পরে জুয়েল নামে আলাউদ্দিনের আরেক সহযোগী কৌশলে ভুক্তভোগী ইটভাটা শ্রমিকের স্ত্রীকে ঘটনাস্থলে ডেকে আনেন। এরপর ইটভাটার শ্রমিক সরদার আলাউদ্দিন ও তার সঙ্গী শহিদুলের সহযোগিতায় ওয়াহিদ ও জুয়েল ওই ইটভাটা শ্রমিকের স্ত্রীকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। একপর্যায়ে তাদের আত্মচিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এলে অভিযুক্তরা ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়।

এ প্রসঙ্গে সাভার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এএফএম সায়েদ দৈনিক অধিকারকে জানান, গণধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত চারজনের মধ্যে একজনকে গ্রেপ্তার করে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

এ দিকে, আশুলিয়ায় স্কুল শিক্ষার্থী ধর্ষণের মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, নরসিংহপুর বুড়ির পাড় এলাকায় হোটেল ব্যবসায়ী বাবা ও গার্মেন্ট শ্রমিক মায়ের সঙ্গে ভাড়া বাসায় থেকে স্থানীয় একটি স্কুলে পড়াশুনা করে আসছে ভুক্তভোগী ওই কিশোরী। কিন্তু অনেক দিন থেকেই একই বাসার ভাড়াটিয়া রাসেল নামে এক যুবকের ওই কিশোরীর দিকে কুদৃষ্টি ছিল। সবশেষ গতকাল রাতে ওই কিশোরী প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিয়ে বাইরে আসলে আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা বখাটে রাসেল তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।

আরও পড়ুন : ট্রাক-সিএনজির সংঘর্ষে স্বামী-স্ত্রী নিহত

এ ব্যাপারে আশুলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রিজাউল হক দিপু দৈনিক অধিকারকে জানান, ভুক্তভোগী কিশোরীকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের পর অভিযুক্ত রাসেলকে গ্রেপ্তার করে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
nite
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
jachai

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড