• বৃহস্পতিবার, ০২ জুলাই ২০২০, ১৮ আষাঢ় ১৪২৭  |   ৩৪ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

চাঁদাবাজি মামলায় মন্ত্রীর কথিত এপিএসসহ ৫ জন গ্রেপ্তার

  নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি

০৫ জুন ২০২০, ২১:০৮
রূপগঞ্জ
গ্রেপ্তারকৃত আসামি হীরা

বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজীর এপিএস পরিচয় দানকারী কামরুজ্জামান হীরাসহ ৫ জনকে চাঁদাবাজির অভিযোগে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। 

শুক্রবার (৫ জুন) দুপুরে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ থানা পুলিশ অভিযুক্ত ৫জনকে গ্রেপ্তার করে। এর আগে রূপগঞ্জ উপজেলার এশিয়ান হাইওয়ে বাইপাস সড়কের উপর দিয়ে বিশ্বাস সিরামিক এন্ড অটো ব্রিকসের টাইলসের এডমিন অফিসার সাব্বির আহম্মেদের দায়ের করা মামলায় তাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন থানা সূত্র।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন,রাজধানী ঢাকার মোহাম্মদপুর থানার রায়ের বাজার মাদ্রাসা গলি এলাকার আবুল কাশেমের ছেলে কামরুজ্জামান হীরা,উপজেলার সাওঘাট এলাকার তারাজ উদ্দিনের ছেলে মহিউদ্দিন, গোলাকান্দাইল এলাকা নিপেন্দ্র দাসের তাপস দাস,একই এলাকা আমিনুল ইসলামের সাজ্জাদ হোসেন,আব্দুল হালিমের ছেলে রনি ভুঁইয়া। এ মামলায় সুমন ও রাজু নামে আরো দুইজন পলাতক রয়েছে বলে জানা গেছে।

মামলার এজাহার থেকে জানা যায়,শুক্রবার সকালে বিশ্বাস সিরামিক এন্ড অটো ব্রিকসের টাইলসের একটি পরিবহন  রূপগঞ্জের সাওঘাট এলাকায় প্রতিষ্ঠানের সামনে একটি ট্রাকে(পটুয়াখালী ট-১১-০০৬৭) পণ্য লোড করছিল।  সকাল ১১টার দিকে পাট মন্ত্রীর কথিত এপিএস কামরুজ্জামান হীরাসহ তার লোকজন প্রতিষ্ঠানের সামনে থাকা ট্রাকে পণ্য লোড দিতে বাধা দেয়। এসময় হীরার সাথের লোকজনদের ধারালো অস্ত্র ছিল। হীরা ও তার লোকজন প্রতিষ্ঠান থেকে ২৬ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। দাবিকৃত চাঁদা দেয়া না হলে প্রতিষ্ঠানের কোন পণ্য আমদানি ও রপ্তানি করা যাবে না বলেও হুমকি দেয় বলে অভিযোগ। এ ঘটনায় প্রতিষ্ঠানের এডিমন অফিসার সাব্বির আহম্মেদ বাদী হয়ে রূপগঞ্জ থানায় ৭জনকে আসামি করে একটি লিখিত অভিযোগ দেন। এরপরেই কামরুজ্জামান হীরাসহ ৫ জনকে চাঁদাবাজির অভিযোগে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তাদের গ্রেপ্তারের পর মামলা দায়ের করা হয়।

সূত্র জানায়, কামরুজ্জামান হীরা নিজেকে পাট ও বস্ত্র মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজীর এপিএস পরিচয় দিয়ে এলাকা দাবিয়ে বেড়াতো। এপিএস পরিচয়ে তিনি তার বাহিনী দিয়ে উপজেলার বিভিন্নস্থানে চাঁদাবাজিসহ নানা রকম অপরাধ সংগঠিত করতো। উপজেলার গোলাকান্দাইল, ভুলতা ও তারাবো ও বরপা এলাকার একটি সংঘবদ্ধ চক্র রয়েছে যারা হীরা বাহিনীর সঙ্গে মিলে বিভিন্ন মিল কারখানায় চাঁদাবাজি করে থাকেন। ২০১৯ সালের ২২ আগস্ট হীরা বাহিনীর সদস্যরা জিসান হোসেন নামে এক স্কুল পড়ুয়া শিক্ষার্থীকে মাটিতে আছড়ে হত্যা করেন। পরে এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে মামলা দায়ের করলেও ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে পাড় পেয়ে যায় অপরাধীরা।
 
রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল হাসান জানান, চাঁদাবাজির অভিযোগে হীরাসহ ৫ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃতদের বিরুদ্ধে মামলা নেয়া হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃতদের আদালতে পাঠানো হয়েছে।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড