• মঙ্গলবার, ১৪ জুলাই ২০২০, ৩০ আষাঢ় ১৪২৭  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ঢাকা ফিরতে ৪ গুণ ভাড়া দিচ্ছেন যাত্রীরা

  মাদারীপুর প্রতিনিধি

১৬ মে ২০২০, ১৭:১০
যাত্রী
কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়া নৌ-রুটে যানবাহনের চাপ (ছবি : সংগৃহীত)

কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়া নৌ-রুটে কিছুতেই থামছে না যাত্রীর চাপ। প্রতিদিনই উভয় পাড়ে যানবাহনের দীর্ঘ যানজটের সঙ্গে বাড়ছে মানুষের ভিড়। সামাজিক দূরত্ব না মেনেই কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়া নৌরুট দিয়ে ঢাকামুখী যাত্রীরা পারাপার হচ্ছেন। কোনোভাবেই কমছে না যাত্রী চলাচল। চাকরি হারানোর ভয়ে করোনার ঝুঁকি নিয়ে ৩-৪ গুণ অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে ঢাকা ফিরছেন তারা।

সীমিত আকারে পোশাক কারখানা চালু এবং ১১ মে থেকে মার্কেট খোলা রাখার ঘোষণার পরে থেকেই কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়া নৌ-রুটে ঢাকামুখী যাত্রীর চাপ বেড়েছে। গণ পরিবহন বন্ধ থাকায় অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে দক্ষিণাঞ্চলের হাজার হাজার যাত্রী ভ্যান, মোটরসাইকেল ও ইজিবাইকে কাঁঠালবাড়ি ঘাটে এসে ভিড় জমাচ্ছেন।

শনিবার (১৬ মে) মাদারীপুরের কাঁঠালবাড়ি ঘাটে যানবাহন ও যাত্রীদের চাপ দেখা গেছে। বেড়েছে ছোট যানবাহন ও পণ্যবাহী ট্রাকের চাপ। সরকারের ঘোষণা অনুযায়ী লঞ্চ ও স্পিড বোট বন্ধ থাকলেও ফেরি যোগে পদ্মা পাড়ি দিচ্ছেন সাধারণ যাত্রীরা। ছোট যানবাহন ও পণ্যবাহী ট্রাকের সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় ১২টি ফেরি চালু রেখেছে ঘাট কর্তৃপক্ষ।

আরও পড়ুন : লালমনিরহাটে আরও ৬ জনের করোনা শনাক্ত

বিআইডব্লিউটিসির কাঁঠালবাড়ি ফেরিঘাটের ব্যবস্থাপক আব্দুল আলিম মিয়া জানান, সরকারি নির্দেশনা পাওয়ার পর এ নৌ-রুটে চলাচলকারী ১৭টি ফেরির মধ্যে ১০টি বন্ধ রাখা হয়। জরুরি প্রয়োজনে অ্যাম্বুলেন্স পণ্যবাহী ট্রাক ও প্রশাসনের কর্মকর্তাদের পারাপারের জন্য সাতটি ফেরি সীমিত আকারে চলাচল করতো। যানবাহনের চাপ বৃদ্ধি পাওয়ায় এখন ১২টি ফেরি চালু রাখা হয়েছে। লঞ্চ ও স্পিড বোট চলাচল বন্ধ থাকায় যাত্রীরা ফেরিতে পারাপার হচ্ছেন।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড