• শুক্রবার, ২৯ মে ২০২০, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

শরীয়তপুরে জ্বর-শ্বাসকষ্ট নিয়ে আইসোলেশনে থাকা রোগীর মৃত্যু

  শরীয়তপুর প্রতিনিধি

০১ এপ্রিল ২০২০, ০১:৩৯
হাসপাতাল
শরীয়তপুর সদর হাসপাতাল (ছবি : দৈনিক অধিকার)

জ্বর-শ্বাসকষ্ট নিয়ে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালের আইসোলেশনে থাকা এক রোগীর মৃত্যু হয়েছে।

মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) রাত ৯টার দিকে তার মৃত্যু হয়। এ নিয়ে পুরো জেলাজুড়ে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। অনেকেই ধারণা করছেন, নোভেল করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ওই রোগীর মৃত্যু হয়েছে।

নিহত ওই রোগীর নাম রকিবুল ইসলাম (৩৫)। সে জেলার নড়িয়া উপজেলার বেপারিকান্দি গ্রামের হামেদ মাদবরের ছেলে বলে জানা গেছে।

তবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বলছে ভিন্ন কথা। তাদের মধ্যে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যাওয়া রকিবুল ইসলাম করোনায় আক্রান্ত ছিল না, এটা নিছক গুজব। এই নিয়ে জনমনে নানা প্রশ্ন উঠেছে।

সরেজমিনে মঙ্গলবার রাতে সদর হাসপাতালে গিয়ে জানা যায়, রকিবুল ইসলাম বিকাল পৌনে ৫টার দিকে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিল। পরবর্তীকালে রাতে আইসোলেশনে থাকা অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

এ ব্যাপারে হাসপাতালে তত্ত্বাবধায়ক মুনীর আহমেদ খান দৈনিক অধিকারকে বলেন, আসলে ব্যাপারটা গুজব। গত ১৯ মার্চ থেকে ২৩ মার্চ সদর হাসপাতালে টিবি রোগী হিসেবে রকিবুল ইসলাম চিকিৎসাধীন ছিল। হঠাৎ ৩১ মার্চ সকাল থেকে তার শ্বাসকষ্ট বেরে যায় এবং তার অবস্থা খারাপ হতে থাকে। পরে তাকে মঙ্গলবার বিকাল পৌনে ৫টার দিকে হাসপাতালে নিয়ে আসলে আমরা তাকে আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি করি। তার বিদেশ ভ্রমণের কোনো হিস্ট্রি নেই। তবে রোগীর অবস্থা খুব খারাপ ছিল।

তিনি বলেন, ‘এ ব্যাপারে আমরা ঢাকার রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) সঙ্গে যোগাযোগ করেছি। আইইডিসিআর বলেছে, আগামীকাল বুধবার (১ এপ্রিল) এসে তারা এই রোগীর নমুনা সংগ্রহ করবেন। রোগীকে আইসিইউতে নিলে সবচেয়ে ভালো হত। তার আত্মীয়-স্বজনের সে সামার্থ নেই, আর আমাদের এখানে আইসিইউ নেই।’

তিনি আরও বলেন, ‘আইসোলেশনে রোগীকে চিকিৎসা দেওয়ার জন্য আমরা অলরেডি ৩ জন ডাক্তার ও ৩ জন নার্সকে আলাদাভাবে রেডি রেখেছি। রোগীর চিকিৎসার পাশাপাশি আমরা ডাক্তারদেরও নিরাপত্তার বিষয়টি দেখভাল করছি। বর্তমানে রোগীটি ডাক্তার তারিকুল ইসলামের তত্ত্বাবধানে আছে। সদর হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে এই প্রথম একজন রোগী ভর্তি হয়েছে।’

আরও পড়ুন : করোনা থেকে বাঁচাবে ছোটবেলায় দেওয়া বিসিজি টিকা!

রোগী যদি করোনায় আক্রান্ত না হয়, তবে সাধারণ বেডে না দিয়ে কেন তাকে আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি কার হলো- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমরা রোগীর ২টি পরীক্ষা করি, একটাতে তার টিবি রোগ ধরা পড়ে। এ কারণে তার জন্য শ্বাসকষ্ট হচ্ছিল এবং অপর একটি রিপোর্টে তার লিভারে পানি জমে ছিল বলে জানা গেছে। সাথে জ্বরও ছিল। তবে এগুলো যক্ষা হলেও হতে পারে। তারপর রোগীটি নড়িয়া থেকে এসেছে। ওইখানে সবচেয়ে বেশি প্রবাসী। তাই সবকিছু ভেবে তাকে আইসোলেশনে পাঠিয়েছি। রাত ৯টার দিকে রোগীর মৃত্যু হয়েছে। তারপরেও আমরা তার নমুনা সংগ্রহ করে টেস্টে পাঠাব।’

ওডি

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড