• মঙ্গলবার, ২৬ মে ২০২০, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

প্রেমিককে ডেকে নিয়ে পা ভেঙে দিল প্রেমিকার বাবা ও স্বামী  

  সিরাজদিখান প্রতিনিধি, মুন্সিগঞ্জ

১১ মার্চ ২০২০, ১৮:২৪
চিকিৎসাধীন রবিউল
হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রবিউল (ছবি : দৈনিক অধিকার)

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলায় পরকীয়া প্রেমিককে বাড়িতে ডেকে নিয়ে পা ভেঙে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে প্রেমিকা জাকিয়া আক্তার মীমের (১৮) বাবা ও স্বামীর বিরুদ্ধে। আহত প্রেমিকের নাম রবিউল (২১)। 

রবিউল উপজেলার চন্দনধূলর গ্রামের মো. হোসেন শেখের ছেলে। আর প্রেমিকা জাকিয়া আক্তার মীম উত্তর কুসুমপুর (শেখবাড়ি) গ্রামের দলিল লেখক জাহিদ হাসান জাকিরের মেয়ে।

মঙ্গলবার (১০ মার্চ) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে উত্তর কুসুমপুর গ্রামের শেখবাড়ির সামনের এ ঘটনা ঘটে। 

এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাতেই ভুক্তভোগী রবিউলের বাবা মো. হোসেন শেখ বাদী হয়ে সিরাজদিখান থানায় জাহিদ হাসান জাকিরকে ১ নম্বর করে আরও তিনজনকে আসামি করে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। 

ভুক্তভোগী বলেন, ২০১৬ সালে রবিউল ও জাকিয়া কুসুমপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়াশোনা করতো। সে সময় তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। একই বছর জাকিয়ার বাবা তাকে অন্যত্র বিয়ে দেয়। বিয়ের পর জাকিয়ার স্বামী শফিক (৩০) প্রবাসে চলে গেলে জাকিয়ার সঙ্গে রবিউলের প্রায় মোবাইল ফোনে যোগাযোগ হতো। সেই সুবাদে তাদের মধ্যে পুনরায় প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। কিছুদিন আগে জাকিয়ার স্বামী প্রবাস থেকে ফিরে আসলে জাকিয়া এবং রবিউলের কথোপকথনের রেকর্ড জাকিয়ার মোবাইলের ইমুতে দেখতে পায়। 

তিনি আরও বলেন, ঘটনার দিন বিকালে রবিউলের মোবাইল ফোনে ফোন করে ইছাপুরা চৌরাস্তায় দেখা করার জন্য বলে জাকিয়া। রবিউল দেখা করতে গিয়ে জাকিয়ার সঙ্গে তার দাদিকে দেখতে পেয়ে দেখা না করে চলে আসে। ওইদিন সন্ধ্যায় জাকিয়া রবিউলকে ফোনে জানায় তার সঙ্গে দেখা না করলে সে মরে যাবে। এ সময় বাধ্য হয়ে জাকিয়ার সঙ্গে দেখা করতে তার বাবার বাড়ির সামনে যায় রবিউল। এ সময় জাকিয়ার বাবা জাহিদ হাসান জাকির ও স্বামী শফিক বাঁশ ও কাঠের লাঠি দিয়ে রবিউলকে মারধর। এতে রবিউলের বাম পায়ের হাড় ভেঙে যায় এবং মাথা ফেটে যায়। তাদের মারধরে রবিউল মাটিতে পরে গেলে জাকিয়ার বাবা ও স্বামী কিল, ঘুষি ও লাথি মেরে রবিউলের শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম করে। পরে জাকিয়ার এক চাচাসহ স্থানীয়রা রক্তাক্ত অবস্থায় রবিউলকে উদ্ধার করে উপজলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করে। 

ভুক্তভোগীর বাবা মো. হোসেন শেখ আরও বলেন, আমার ছেলে না হয় তার মেয়ে সঙ্গে কথা বলে অন্যায় করেছে। তারা আমার ছেলে বিচার করতে পারত, না হয় আমাকে জানাতে পারত।

এ ব্যাপারে ইছাপুরা ১ নম্বর ওয়ার্ড ইউপি সদস্য মো. স্বপন বলেন, কালকে রাতে একজন ফোনে আমাকে বিষয়টি জানায়। পরে আমি গিয়ে সেখানে রবিউলকে না পেয়ে হাসপাতালে দেখে আসি। আমি ও রবিউলের বাবা চেয়ারম্যানকে ঘটনাটি জানাই। পরে চেয়ারম্যানের পরামর্শে ছেলের বাবাকে থানায় নিয়ে যাই। এর বেশি আমি আর বলতে পারব না।

আরও পড়ুন: সিরাজগঞ্জে ১০ মাস্ক ব্যবসায়ীকে জরিমানা

এ বিষয়ে জানতে জাকিয়ার বাবা জাহিদ হাসান জাকিরের মুঠোফোনে বার বার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি। 

সিরাজদিখান থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. ফরিদ উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, রবিউলকে উপজেলা সাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসার পর ঢাকায় রেফার্ড করা হয়েছে। এ বিষয়ে থানায় একটি নিয়মিত মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ওডি/এসএএফ

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড