• শনিবার, ০৪ এপ্রিল ২০২০, ২১ চৈত্র ১৪২৬  |   ৩৬ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

কুলাউড়ায় সূর্যমুখীর বাম্পার ফলনে কৃষকের মুখে হাসি

  এস আর অনি চৌধুরী, কুলাউড়া, মৌলভীবাজার

২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১০:৫১
সূর্যমুখী চাষ
সূর্যমুখী চাষ (ছবি : দৈনিক অধিকার)

সূর্যমুখী চাষ করে এলাকায় সাড়া ফেলেছেন মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার বরমচাল ইউনিয়নের সাব্বির উদ্দিন। সূর্যমুখীর বাম্পার ফলনে কৃষকের মুখে এখন বিরাজ করছে রাজ্যের আনন্দ হাসি। 

সূর্যমুখী ফুল চাষে আশার হলুদ ফুলের সৌরভ ছড়াচ্ছে। গাছে গাছে ফুটেছে ফুল। পুরো মাঠ হলদে ফুলে সুশোভিত। বিস্তীর্ণ এলাকাজুড়ে সূর্যমুখী ফুলের আবাদ দেখে দূর থেকে তাকালে যে কারও মনে হতে পারে প্রকৃতি যেন হলুদ গালিচা বিছিয়ে দিয়েছে, যেখানে সাময়িক সময়ের জন্য হারিয়ে যেতে মন চায়। বিস্তৃত সূর্যমুখী বাগানের এই হলুদাভ দৃশ্যটি যে কারও মনকে আকৃষ্ট করে তুলে, যা পর্যটকদের কাছে টানছে এক অমোঘ আকর্ষণে।

কুলাউড়া উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের সহযোগিতায় বরমচাল ইউনিয়নের খাদিমপাড়া-সিংগুর গ্রামে এবার সূর্যমুখী ফুলের চাষ করে লাভবান হয়েছেন সিংগুর গ্রামের সাব্বির উদ্দিন।

কৃষি অফিসের তথ্যমতে, এ বছর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের ২০ বিঘা জমিতে কৃষকরা সূর্যমুখী ফুলের চাষ করেছেন। একই সঙ্গে সূর্যমুখী চাষ করে বেশি লাভবান হয়েছেন উপজেলার বরমচাল ইউনিয়নের সিংগুর গ্রামের সাব্বির উদ্দিন।

উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিস সূত্রে জানা যায়, চলতি বছর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে হাইসান-৩৬ জাতের সূর্যমুখী ফুলের চাষ করা হয়। উপজেলা কৃষি অফিস থেকে কৃষকদের বিনা মূল্যে বীজ ও সার দেওয়া হয়। 

বরমচাল ইউনিয়নের সিংগুর গ্রামের সূর্যমুখী ফুল চাষি সাব্বির উদ্দিন জানান, তিনি এক বিঘা জমিতে হাইসান-৩৬ জাতের সূর্যমুখী ফুলের চাষ করে লাভবান হয়েছেন। ইতোমধ্যে প্রতিটি গাছে ফুল ধরেছে। 

তিনি আরও বলেন, প্রতিদিন বিকালে শহরসহ আশপাশ এলাকা থেকে সৌন্দর্য পিপাসুরা দল বেঁধে আসেন সূর্যমুখী ফুলের বাগান দেখতে। তিনি আশা করেন, সূর্যমুখী চাষে সফলতা আসবে। 

কুলাউড়া উপজেলা কৃষি অফিসার জগলুল হায়দার দৈনিক অধিকারকে বলেন, ‘আগেও উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে সূর্যমুখী ফুলের চাষ করা হলেও এ বছর সূর্যমুখী ফুলের চাষ করে লাভবান হয়েছেন সাব্বির উদ্দিন। এ বছর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের সহযোগিতায় উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের ২০ বিঘা জমিতে হাইসান-৩৬ জাতের সূর্যমুখী চাষ করা হয়েছে।’ 

তিনি আরও বলেন, সূর্যমুখী ফুলের বীজ থেকে যে তেল পাওয়া যায় তাতে কোনো ক্ষতিকর কোলেস্টেরল নেই। বাজার থেকে যে সাধারণ সয়াবিন তেল কিনি তাতে ক্ষতিকর কোলেস্টেরল থাকে, যা স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। কৃষকদের স্বাবলম্বী করতে সূর্যমুখী ফুল চাষে উৎসাহিত করা হয়েছে বলেও জানান তিনি। 

আরও পড়ুন : বেলগাঁও চা বাগান পর্যটনের হাতছানি

কুলাউড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার এটিএম ফরহাদ চৌধুরী দৈনিক অধিকারকে বলেন, ‘কুলাউড়ায় সূর্যমুখী চাষে কৃষকদের উদ্বুদ্ধ করতে বিনা মূল্যে সূর্যমুখীর বীজ ও সার দেওয়া হয়েছে। আশা করি খুব ভালো ফলন হবে।’ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে কৃষকদের সকল ধরনের পরামর্শ ও সহায়তা প্রদান করে হচ্ছে। আগামীতে আরও বেশি জমিতে সূর্যমুখীর চাষ হবে বলে আশা করেন তিনি। 

ওডি/এএসএল

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড