• রোববার, ২৯ মার্চ ২০২০, ১৫ চৈত্র ১৪২৬  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

বরগুনায় রশি টানাটানিতে সংস্কার হচ্ছে না বেইলি ব্রিজের

  আমতলী প্রতিনিধি, বরগুনা

২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১২:০৪
বেইলি ব্রিজ
ভেঙে যাওয়া বেইলি ব্রিজ (ছবি : দৈনিক অধিকার)

বরগুনার আমতলী-তালতলী-ফকিরহাট সড়কের আড়পাঙ্গাশিয়া নদীর ওপর নির্মিত বেইলি ব্রিজটি এখন মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে। যে কোনো সময় ঘটে যেতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা। দুই বিভাগের রশি টানাটানিতে সংস্কার হচ্ছে না ব্রিজটি। দ্রুত ব্রিজটি সংস্কার করা না হলে দুই উপজেলার দুই লক্ষাধিক মানুষের সড়ক পথে যাতায়াতের একমাত্র মাধ্যমটি যে কোনো সময় বন্ধ হয়ে যেতে পারে। 

ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে দেখা যায়, আমতলী থেকে তালতলী উপজেলায় সড়ক পথে যাতায়াতের জন্য আড়পাঙ্গাশিয়া নদীর ওপর ১৯৮৫ সালে স্টিলের বেইলি ব্রিজ নির্মাণ করেন। ব্রিজটি দিয়ে প্রতিদিন এই দুই উপজেলার মানুষ যাতায়াত করে। এই বেইলি ব্রিজটি দিয়ে ঢাকা-বরিশাল-আমতলী ও তালতলী রুটে বিভিন্ন পরিবহনের হাজারো গাড়ি প্রতিদিন চলাচল করে। 

দীর্ঘদিন ব্রিজটি সংস্কার না করায় অধিক সংখ্যক গাড়ি চলাচল করায় দিনদিন ব্রিজটি নড়বড়ে হয়ে পড়েছে। ব্রিজের পাটাতন ভেঙে পড়ে গেছে। যানবাহনগুলো বেইলি ব্রিজে ওঠার সঙ্গে সঙ্গে ঠকঠক শব্দ করে। ব্রিজের মাঝখানের পাটাতন দেবে গেছে। প্রতিদিন ঝুঁকি নিয়ে যানবাহনগুলো ব্রিজটি পার হচ্ছে। 

আমতলী উপজেলা প্রকৌশলী বিভাগ এবং বরগুনা সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের রশি টানাটানিতে বেইলি ব্রিজটি সংস্কার করা হচ্ছে না। আমতলী উপজেলা প্রকৌশলী (এলজিইডি) বিভাগের দাবি আমতলী-তালতলী-ফকিরহাট সড়কটি সওজ এলজিইডির কাছ থেকে নিয়ে গেছে। তাই ওই ব্রিজের দেখভালের দায়িত্ব এখন তাদের। 

অপরদিকে বরগুনা সড়ক ও জনপথ বিভাগ দাবি করছেন সড়ক ও জনপথ বিভাগ এলজিইডির কাছ থেকে ওই সড়কটি আনার প্রক্রিয়া চলছে। এখন পর্যন্ত সড়কটি আনা হয়নি। যতক্ষণ পর্যন্ত আনা হবে না ততক্ষণ পর্যন্ত সড়কটির সবকিছুর দেখভাল এলজিইডির। তাই ওই ব্রিজটি তারাই সংস্কার করবেন।

উপজেলা প্রকৌশলী মো. আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, ওই সড়কটি আমাদের কাছ থেকে সড়ক ও জনপথ বিভাগ নিয়ে গেছে। ওই সড়কের আড়পাঙ্গাশিয়া নদীর ওপর নির্মিত ঝুঁকিপূর্ণ বেইলি ব্রিজটি তারাই সংস্কার করবেন। 

আরও পড়ুন : করোনায় মৃতের সংখ্যা ২১২০, ৩ ঘণ্টায় ভ্যাকসিন আবিষ্কার

বরগুনার সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. কামরুজ্জামান মুঠোফোনে বলেন, স্থানীয় প্রকৌশল বিভাগের (এলজিইডি) কাছ থেকে সড়ক ও জনপথ বিভাগে আনার প্রক্রিয়া চলমান আছে। এখনো ওই সড়কটি এলজিইডির অধীনেই। তাই আড়পাঙ্গাশিয়া নদীর ওপর নির্মিত বেইলি ব্রিজটি তারাই সংস্কার করবেন।  

ওডি/এএসএল

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড