• সোমবার, ৩০ মার্চ ২০২০, ১৬ চৈত্র ১৪২৬  |   ৩৪ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

এসএসসি পরীক্ষার্থীর মাথা ফাটালেন শিক্ষক

  মাদারীপুর প্রতিনিধি

১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৪:৫৬
মাদারীপুর
আহত শিক্ষার্থী রাকিবুল মৃধা

এসএসসি পরীক্ষার্থীকে মাথায় হার্ডবোর্ড নিক্ষেপ করে মারাত্মকভাবে রক্তাক্ত করলেন কেন্দ্রে দায়িত্বরত এক শিক্ষক। সোমবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) সকাল পৌনে ১০টার দিকে মাদারীপুরে আছমত আলী খান পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে। পরে কেন্দ্র সচিব ও উপজেলা প্রশাসন অভিযুক্ত শিক্ষককে সকল দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেন।

প্রত্যক্ষদর্শী একাধিক শিক্ষার্থী ও কেন্দ্রে দায়িত্বরত কর্মকর্তারা জানান, সকাল পৌনে ১০টার দিকে আছমত আলী খান পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে এসএসসি পরীক্ষায় ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের শিক্ষার্থী রাকিবুল মৃধাসহ অন্যরাও পরীক্ষায় অংশ নিতে কক্ষে প্রবেশ করে।

এ সময় রাকিবুল মৃধা উত্তরপত্র সম্পূর্ণ করছিলেন না এমন অভিযোগে ওই কক্ষের শিক্ষক পরিদর্শক আবুল হোসেন তার ওপর রেগে যায়। একপর্যায়ে শিক্ষার্থীর ব্যবহারিক হার্ডবোর্ড তাকে ছুড়ে মারে। এতে হার্ডবোর্ডের লোহার পাতে শিক্ষার্থী রাকিবুল মৃধার মাথা কেটে রক্ত ঝরতে থাকে।

পরে অন্য শিক্ষকরা দ্রুত এগিয়ে এসে ওই শিক্ষার্থীর প্রয়োজনীয় চিকিৎসার ব্যবস্থা করান। এতে প্রায় আধ ঘণ্টা পরে ওই শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নেয়। এই ঘটনায় কেন্দ্র সচিব মো. হুমায়ন কবির তাৎক্ষণিক অভিযুক্ত শিক্ষক আবুল হোসেনকে সকল প্রকার পরীক্ষা থেকে অব্যাহতি দেন। এই ঘটনায় শিক্ষার্থীর অভিভাবক ও স্থানীয়রা ক্ষোভে ফুঁসে ওঠে।

আহত শিক্ষার্থী মাদারীপুর পৌর শহরের ইউনাইটেড ইসলামিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের।

সে সদর উপজেলার রাস্তি ইউনিয়নের পূর্ব রাস্তি গ্রামের জব্বার মৃধার ছেলে। আর অভিযুক্ত শিক্ষক আছমত আলী খান পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের খণ্ডকালীন ইংরেজি শিক্ষক। এই ঘটনার পর ওই কেন্দ্রে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত শিক্ষক আবুল হোসেন বলেন, ‘আমি ইচ্ছা করে ওই শিক্ষার্থীকে হার্ডবোর্ড নিক্ষেপ করিনি। ওই ছাত্রকে বারবার বলার পরেও উত্তরপত্রের ওএমআর ঠিক করছিল না। পরে রাগ হয়ে তার ওপর হার্ডবোর্ড ছুড়ে মারলে কিছুটা কেটে গেছে। এজন্যে আমি আন্তরিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করছি।

কেন্দ্র সচিব মো. হুমায়ন কবির বলেন, আমি তাৎক্ষণিকভাবে ওই শিক্ষককে সকল প্রকার দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দিয়েছি। ওই শিক্ষক আছমত আলী খান পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের খণ্ডকালীন ইংরেজির শিক্ষক। তাকে ওই স্কুল থেকেও অব্যাহতি দেওয়ার সুপারিশ করা হবে।

ওডি/আরবি

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড