• শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১ আশ্বিন ১৪২৭  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

দক্ষিণ আফ্রিকায় সন্ত্রাসীর গুলিতে ঝাঁজরা হলো বাংলাদেশির শরীর

  আনোয়ারা প্রতিনিধি, চট্টগ্রাম

১০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৮:৩৭
নিহত
সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত বাংলাদেশি যুবক মুরাদ খান (ছবি : দৈনিক অধিকার)

দক্ষিণ আফ্রিকায় সন্ত্রাসীদের এলোপাতাড়ি গুলিতে চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলার এক যুবক নিহত হয়েছেন।

রবিবার (৯ ফেব্রুয়ারি) রাতে সন্ত্রাসীরা নিজ বাসায় তাকে এলোপাতাড়ি গুলি চালিয়ে হত্যা করে।

নিহত ওই যুবকের নাম মুরাদ খান (৩২)। সে আনোয়ারা উপজেলার মোহাম্মদপুর গ্রামের ফয়েজ আলী সিকদার বাড়ির অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা আবদুল মাবুদ খানের দ্বিতীয় ছেলে।

নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ৯ বছর আগে মুরাদ বেকারত্বের অবসান ঘটিয়ে বড় ভাইয়ের হাত ধরে দক্ষিণ আফ্রিকায় পাড়ি জমান। পরে সেখানে বড় ভাইয়ের সহযোগিতায় একটি রকমারি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলেন। প্রতিদিনের ন্যায় রবিবার রাতেও ব্যবসার কার্যক্রম শেষ করে দুই ভাই একসঙ্গে বাসায় চলে যায়। এরপর দুজনে নিজ নিজ রুমে ঘুমিয়ে পড়ে।

রাতে হঠাৎ একদল সন্ত্রাসী তাদের বাসার দরজা ভেঙে মুরাদের বুকে ও পিঠে এলোপাতাড়ি গুলি করে পালিয়ে যায়। এতে মুরাদ গুরুতর আহত হলে বড় ভাই মারুফ দ্রুত তাকে হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরে পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর চিকিৎসক মুরাদকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতের বাবা আবদুল মাবুদ কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, ‘২০১১ সালে মুরাদ দক্ষিণ আফ্রিকা যাওয়ার পর একবারও দেশে আসেনি। আগামী মার্চে তার দেশে এসে বিয়ে করার কথা ছিল। মনে করেছিলেম বাড়ি আসলে ধুমধামে ছেলের বিয়ে দেব। আমাদের সেই স্বপ্ন ভেঙে চুরমার হয়ে গেল।’

তিনি জানান, আগামী সপ্তাহে মুরাদের মরদেহ দেশে আনা হবে।

আরও পড়ুন : এক মেয়েকে কবরে রেখে অপরজনের লাশ নিতে হাসপাতালে বাবা

এ দিকে, সন্তানের মৃত্যুর খবর শুনে বারবার জ্ঞান হারাচ্ছেন মুরাদের মা সুলতানা রাজিয়া। নিহতের বাড়িতে এখন ভাই-বোন ও আত্মীয়-স্বজনদের আহাজারি চলছে।

ওডি/আইএইচএন

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড