• রোববার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১০ ফাল্গুন ১৪২৬  |   ২০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

মরদেহ দেখে বাড়ি ফেরার পথে লাশ হলো যুবক

  ময়মনসিংহ প্রতিনিধি

১০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৫:৪৩
মোটরসাইকেল
ট্রাকচাপায় দুমড়ে-মুচড়ে যাওয়া মোটরসাইকেল (ছবি : দৈনিক অধিকার)

বন্ধুর মায়ের মৃত্যুর খবরে মরদেহ দেখে মোটরসাইকেলযোগে বাড়ি ফেরার সময় ট্রাকচাপায় ময়মনসিংহে হাফেজ মোহাম্মদ মাসুম বিল্লাহ (১৭) নামে এক যু্বক নিহত হয়েছেন।

সোমবার (১০ ফেব্রুয়ারি) সকাল সোয়া ৯টার দিকে নান্দাইল উপজেলার ঝালুয়া বাজার সংলগ্ন ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত হাফেজ মোহাম্মদ মাসুম বিল্লাহ উপজেলার শেরপুর ফাজিল মাদরাসার অধ্যক্ষ মো. শামছুল হক ফকিরের ছেলে ও নান্দাইল ইউনিয়নের পাঁচানী গ্রামের বাসিন্দা।

শেরপুর ফাজিল মাদরাসার লাইব্রেরিয়ান মোজাম্মেল হোসেন ওরফে আহাম্মেদ কাজল জানান, মাসুম বিল্লাহ সোমবার ভোরে তার বন্ধুর মায়ের মৃত্যুর খবর পায়। পরে মরদেহ দেখে মোটরসাইকেল চালিয়ে পাঁচানী গ্রামের নিজ বাড়িতে ফিরছিল সে। পথিমধ্যে ঝালুয়া বাজার সংলগ্ন এলাকায় পৌঁছালে কিশোরগঞ্জগামী একটি ট্রাক তার মোটরসাইকেলটিকে পেছন থেকে ধাক্কা দেয়। এতে সড়কে ছিটকে পড়লে ওই ট্রাকটি তাকে চাপা দিয়ে দ্রুত ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়।

পরবর্তীকালে স্থানীয়রাসহ ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা তাকে গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে নান্দাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। এরপর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালে পাঠানোর পরামর্শ দেয়। ওই সময় দ্রুত তাকে মমেক হাসপাতালে নেওয়ার পথে ঈশ্বরগঞ্জ এলাকায় মাসুম বিল্লাহর মৃত্যু হয়।

আরও পড়ুন : পিরোজপুরে সড়কে ঝরল যুবলীগ নেতার প্রাণ

নান্দাইল হাইওয়ে পুলিশের ইনচার্জ জিয়াউদ্দিন দৈনিক অধিকারকে জানান, ঘাতক ট্রাকটি আটকের চেষ্টা চলছে।

ওডি/আইএইচএন

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড