• বৃহস্পতিবার, ০২ এপ্রিল ২০২০, ১৯ চৈত্র ১৪২৬  |   ৩৩ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

নোয়াখালীর সেটেলমেন্ট অফিসারদের ব্যাপক দুর্নীতি

  নোয়াখালী প্রতিনিধি

৩০ জানুয়ারি ২০২০, ২২:০৭
দুর্নীতি তদন্তে মাঠে নেমেছে ভূমি রেকর্ড অধিদপ্তর
দুর্নীতি তদন্তে মাঠে নেমেছে ভূমি রেকর্ড অধিদপ্তর (ছবি : দৈনিক অধিকার)

নোয়াখালী জোনাল সেটেলমেন্ট অফিসের বিরুদ্ধে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। গোয়েন্দা প্রতিবেদনের ভিত্তিতে অভিযোগ তদন্তে ইতোমধ্যে মাঠে নেমেছে ভূমি রেকর্ড অধিদপ্তর। তদন্তে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির প্রমাণও পেয়েছেন তদন্ত কর্মকর্তা।

ভুক্তভোগীদের ভাষ্য মতে, নোয়াখালী জোনাল সেটেলমেন্ট অফিসে মাঠ জরিপ, তসদিক, আপত্তি, আপিল নিয়ে অনেকটা খোলামেলা বাণিজ্য করেন নোয়াখালী জোনাল সেটেলমেন্ট কর্মকর্তা সামছুদ্দিন আলম, সহকারী সেটেলমেন্ট কর্মকর্তা ও পেশকার গোলাম হোসেনসহ অফিসের ৮ থেকে ১০ জন কর্মকর্তা।

বৃহস্পতিবার (৩০ জানুয়ারি) ভূমি রেকর্ড ও জরিপ অধিদপ্তরের পরিচালক এ বি এম. মাহফুজুর রহমান সুনির্দিষ্ট ১০টি মামলা নিষ্পত্তির অনিয়ম ও দুর্নীতি সরেজমিনে তদন্ত করেন। 

তিনি সরেজমিনে তদন্ত শেষে গণমাধ্যমকর্মীদের জানান, একটি মামলা তিন কার্যদিবসে শুনানি করে শেষ করার সুনির্দিষ্ট বিধান রয়েছে। কিন্তু এখানে কর্মকর্তাদের যোগসাজশে শুধু মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নেওয়ার উদ্দেশ্যে গ্রাহকদের হয়রানি করে ১৫ থেকে ২০টি শুনানি করা হয়। পেশকার গোলাম হোসেন বিচারক ছাড়াই নিজেই কর্মকর্তাদের সঙ্গে আঁতাত করে রায় লিখে দেন। এ দুর্নীতি ও অনিয়ম প্রমাণিত হওয়ায় তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ করা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়নের মোখলেছুর রহমানের একটি মামলার ১৫ জানুয়ারি শুনানির দিন ধার্য ছিল। কিন্তু ওই দিন বিচারক না আসায় পরবর্তী ২৭ জানুয়ারি শুনানির দিন ধার্য ছিল। ভুক্তভোগী ২৭ জানুয়ারি এসে জানতে পারে ২০ জানুয়ারি তার মামলা এক তরফাভাবে তার অনুপস্থিতে শুনানি হয়ে গেছে।

আরও পড়ুন :  নারায়ণগঞ্জে সড়কে ঝরল কিশোরীর প্রাণ

তদন্তে দেখা যায়, প্রকৃতপক্ষে ওই দিন (২০ জানুয়ারি) কোনো শুনানি হয়নি। কিন্তু পেশকার গোলাম হোসেন ও কর্মকর্তা সামছুদ্দিন আলমের যোগসাজশে, কোনো নিয়ম-নীতির তোয়াক্কা না করে পেশকার গোলাম হোসেন রায় লিখে দেন। তদন্তে এ অনিয়ম প্রমাণিত হওয়ার তদন্ত কর্মকর্তা আগামী ১০ ফেব্রুয়ারি এ মামলার পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য করে। সেই সঙ্গে দুর্নীতি ও অনিয়মের সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ করেন।

ওডি/এফইউ
 

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড