• মঙ্গলবার, ০৪ আগস্ট ২০২০, ২০ শ্রাবণ ১৪২৭  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

‘ভেঙেছে আমার স্বপ্ন, আমার একমাত্র উপার্জনের মাধ্যম’

  জাহেদুর রহমান সোহাগ, রাঙ্গুনিয়া, চট্টগ্রাম

১৪ জানুয়ারি ২০২০, ২২:৫৭
প্রতিবন্ধী
প্রশাসনের নাম ভাঙিয়ে দুর্বৃত্তরা প্রতিবন্ধী আব্বাস মিয়ার ছোট দোকনটি ভেঙে গুঁড়িয়ে দেয় (ছবি : দৈনিক অধিকার)

চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া উপজেলার ধামাইরহাট বাজারের ক্ষুদ্র দোকানি প্রতিবন্ধী আব্বাস মিয়া। জন্মগতভাবে দুই পা বিকলাঙ্গ তার। স্বাভাবিকভাবে হাঁটতে পারেন না, তবুও ঘুরে দাঁড়াবার চেষ্টা করছেন তিনি।

অসহায় জীবনের চাকা ঘুরাতে সমাজের কাছে বোঝা হতে চাননি আব্বাস মিয়া। সম্মানের সঙ্গে সমাজের বুকে মাথা উঁচু করে বাঁচতে সকল প্রতিবন্ধকতাকে জয় করে অল্প শিক্ষিত আব্বাস মিয়া ধামাইরহাট বাজারে বসেন ছোট্ট একটি পান-সিগারেটের দোকান নিয়ে। কিন্তু কালবৈশাখীর ছোবলের মতো সোমবার (১৩ জানুয়ারি) রাতে সাজানো এই ছোট্ট দোকানটি গুঁড়িয়ে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা।

কান্নাজড়িত কণ্ঠে আব্বাস মিয়া বলেন, ‘দোকানটি আমার স্বপ্ন, আমার একমাত্র উপার্জনের মাধ্যম। এতে আমার স্বপ্ন ভেঙেছে।’

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সোমবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে জলদাশ পাড়ার লগু দাশসহ প্রায় ৫০ জন মদ্যপায়ী ব্যক্তি লাঠিসোঁটা হাতে প্রতিবন্ধী আব্বাসের দোকান ভাঙচুর করতে থাকেন। এ সময় তাদের বাঁধা দেওয়া হলে তারা বলে, ‘প্রশাসনের নির্দেশ আছে।’ এক পর্যায়ে স্থানীয়দের তোপের মুখে তারা ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়।

পরবর্তীকালে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন ধামাইরহাটের ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সভাপতি শাহ আলম ও সাধারণ সম্পাদক ফজলুল করিম সেলিম। এ সময় তারা বলেন, ‘এমন ঘটনায় আমরা মর্মাহত। প্রশাসনের পক্ষ থেকে এই ধরনের কোনো নির্দেশনা বাজার সমিতিকে দেওয়া হয়নি। তারা আমাদের না জানিয়ে এই জঘন্য কাজটা করেছে।’

এ ব্যাপারে দক্ষিণ রাজানগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আহমদ সৈয়দ তালুকদার বলেন, ‘মন্দিরের দেয়ালে কাজ করার জন্য আমি চৌকিদার পাঠিয়ে তাকে (আব্বাস মিয়া) দোকানটি সরিয়ে নিতে বলেছিলাম। সে কয়েকদিনের সময় চেয়েছিল। কিন্তু তার আগেই এই ধরনের ঘটনা অত্যন্ত দুঃখজনক। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।’

এ সময় মন্দিরের সভাপতি অভিযুক্ত লগু দাশকে (৫০) প্রশাসন থেকে কোনো নির্দেশ দেওয়া হয়েছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘প্রশাসন দোকান সরাতে বলেছেন কিন্তু ভাঙার নির্দেশ দেয়নি।’

আরও পড়ুন : ১২ লাখ টাকা আত্মসাৎ করলেন সরকারি কর্মকর্তা

এই বিষয়ে বৈঠকের মাধ্যমে আব্বাস মিয়াকে ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে বলে জানান ইউপি চেয়ারম্যান আহমদ সৈয়দ তালুকদার।

এ ব্যাপারে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফখরুল ইসলাম বলেন, ‘দোকান ভাঙার নির্দেশ প্রশাসন থেকে দেওয়া হয়নি। যারা প্রশাসনের নাম ভাঙিয়ে এই কাজ করেছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

ওডি/আইএইচএন

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
nite
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
jachai

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড