• শনিবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২০, ৫ মাঘ ১৪২৭  |   ১৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

সিলেটে নোটিশ ছাড়াই কালভার্ট সংস্কার, সিসিকের দুঃখ প্রকাশ

  সিলেট প্রতিনিধি

১৪ জানুয়ারি ২০২০, ২২:৪৬
কালভার্টগুলো ভেঙে
কালভার্টগুলো ভেঙে ফেলায় দুর্ভোগে নগরবাসী (ছবি : দৈনিক অধিকার)

সিলেট নগরীতে সিসিকের পূর্ব নোটিশ ছাড়াই রাস্তা বন্ধ করে কালভার্ট সংস্কার কাজ শুরু করায় নগরীতে দেখা দিয়েছে চরম জনদুর্ভোগ। তীব্র সমালোচনার পর অবশেষে টানা তিনদিন দুর্ভোগের পর দুঃখ প্রকাশ করে এক গণবিজ্ঞপ্তি জারি করেছে সিলেট সিটি করপোরেশন (সিসিক)। 

এ দিকে, টানা তিনদিন দুর্ভোগের পর গণবিজ্ঞপ্তি নিয়ে সিসিকের দায়িত্বশীলতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন সচেতন মহল। আগামীতে যেকোনো কাজে আগাম নোটিশ জারি করার আহ্বান জানান তারা।

কালভার্ট সংস্কারের জন্য গত শনিবার রাত থেকে সিলেট নগরীর জিন্দাবাজার-নাইওরপুল সড়কে যান চলাচল বন্ধ করে দেয় সিলেট সিটি করপোরেশন (সিসিক)। কোনো ঘোষণা ছাড়াই ব্যস্ততম এই সড়কের যান চলাচল বন্ধ করে দেওয়ায় দুর্ভোগে পড়েন নগরবাসী। 

টানা তিনদিন সিলেট নগরবাসীর অবর্ণনীয় দুর্ভোগের পর দুঃখ প্রকাশ করে এক গণবিজ্ঞপ্তি জারি করেছে সিলেট সিটি করপোরেশন (সিসিক)। 

বিভিন্ন দৈনিক পত্রিকায় প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, কালভার্টগুলো ভেঙে প্রশস্ত করার জন্য মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) থেকে জিন্দাবাজার পয়েন্ট থেকে বারুতখানা পয়েন্ট এবং অনুরাগ হোটেলের সামনে থেকে নাইওরপুল পয়েন্ট পর্যন্ত রাস্তা বন্ধ থাকবে। এ অবস্থায় যানবাহন চালকদের বিকল্প রাস্তা ব্যবহার করার অনুরোধ জানানো হয়েছে।  

সিসিক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, দ্রুত গতিতে কালভার্টের সংস্কার কাজ করা হচ্ছে। তবে প্রায় মাসখানেক এই সড়কে যান চলাচল বন্ধ থাকবে।

সূত্র জানায়, গত শনিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে বারুতখানা পয়েন্ট থেকে একশ' গজ পশ্চিমে রাস্তার ওপরের বক্স কালভার্ট ভেঙে ফেলা হয়। মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর উপস্থিতিতে কালভার্ট ভাঙার কাজ শুরু হয়। রবিবার সকালে নাইওরপুল পয়েন্ট থেকে ১শ গজ পশ্চিমে আরেকটি ছোট কালভার্ট ভাঙার কাজ শুরু হয়। এতে নগরীর ব্যস্ততম জিন্দাবাজার-নাইওরপুল সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। 

একই সড়কের জিন্দাবাজার-বারুতখানা অংশে এবং জেল রোড-নাইওরপুল অংশে দুটি কালভার্টের পুরোটা ভেঙে ফেলায় সাধারণ মানুষ ও ব্যবসায়ীদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। নগরীর প্রাণকেন্দ্র জিন্দাবাজারে আসতে হলে টিলাগড়, শিবগঞ্জ, মিরাবাজার, কুমারপাড়া, উপশহর, রায়নগরসহ আশপাশের এলাকার মানুষ এ সড়ক ব্যবহার করেন। এ অবস্থায় দুটি কালভার্ট পুরোপুরি ভেঙে ফেলা সিসিকের স্বেচ্ছাচারী আচরণ বলে মনে করছেন নগরবাসী।

সিলেট জেলা স্কাউটের সহকারী কমিশনার মো. হিফজুর রহমান খান বলেন, আগাম নোটিশ ছাড়াই নগরীর ব্যস্ততম রাস্তা বন্ধ করে কালভার্ট সংস্কার করা সিসিকের ঠিক হয়নি। এতে নগরীতে দুর্ভোগ দেখা দিয়েছে। অবশেষে তিনদিন পর সিসিক নোটিশ জারি করল। এতে সিসিকের দায়িত্বশীলতা নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। ভবিষ্যতে রাস্তা বন্ধ করে কোনো কাজ শুরুর আগেই নোটিশ জারির অনুরোধ জানাচ্ছি।

আরও পড়ুন: খুলনায় ৪ ইটভাটাকে লক্ষাধিক টাকা জরিমানা

সিলেট সিটি করপোরেশনের প্রধান প্রকৌশলী নুর আজিজুর রহমান বলেন, জিন্দাবাজার-নাইওরপুল সড়ক প্রশস্ত করার জন্য কালভার্ট দুটি ভাঙা হয়েছে। এ দুটি কালভার্ট নির্মাণে ছয় মাস সময় নির্ধারিত থাকলেও সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার এক মাসের মধ্যেই কাজ শেষ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

ওডি/ এফইউ

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: +৮৮০১৯০৭-৪৮৪৮00, +৮৮০১৯০৭৪৮৪৭০২  

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড