• মঙ্গলবার, ০৭ এপ্রিল ২০২০, ২৪ চৈত্র ১৪২৬  |   ৩৩ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

শাজাহানপুরে অবৈধ ইটভাটা গুঁড়িয়ে দিল প্রশাসন

  বগুড়া প্রতিনিধি

১৪ জানুয়ারি ২০২০, ২০:২২
ভেঙে ফেলা হচ্ছে ইটভাটার চিমনি
ভেঙে ফেলা হচ্ছে ইটভাটার চিমনি (ছবি : দৈনিক অধিকার)

চলতি মৌসুমে ইট পোড়ানোর জন্য অন্যান্য ইটভাটার মতোই আগুন দিয়েছিল বগুড়ার শাজাহানপুরের সুজাবাদ এলাকায় অবস্থিত ‘এবিএফ-২’ নামের ইটভাটা। কিন্তু ভাটাটি পৌর এলাকায় অবস্থিত হওয়ায় নিষিদ্ধ ফিক্সড চিমনি, ইটপোড়ানোর লাইসেন্স এবং পরিবেশ অধিদপ্তরের অনুমতি ছিল না। 

এ কারণে মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) দুপুরে এই অবৈধ ইটভাটাটি গুঁড়িয়ে দিয়েছে প্রশাসন। 

এর আগে মাদলা এলাকায় অবস্থিত ‘কে অ্যান্ড এস’ নামের একটি অবৈধ ইটভাটা গুঁড়িয়ে দিয়েছিল প্রশাসন। এছাড়া প্রশাসনের নির্দেশে বগুড়ার শাজাহানপুরে এসএসবি, এমএমবি-১, এমএমবি-২, এলজিকে এবং স্টার ব্রিক্স নামের পাঁচটি অবৈধ ইটভাটা স্বেচ্ছায় গুঁড়িয়ে দেয় ইটভাটা মালিকরা। 

পরিবেশ অধিদপ্তর রাজশাহী বিভাগীয় পরিচালক মো. আশরাফুজ্জামান জানিয়েছেন, অবৈধ ইটভাটা উচ্ছেদে কোনো ছাড় নয়। অভিযান শুরু হয়েছে। পর্যায়ক্রমে সবগুলো অবৈধ ইটভাটা উচ্ছেদ করা হবে।

উচ্ছেদ অভিযানে উপস্থিত ছিলেন- পরিবেশ অধিদপ্তর রাজশাহী বিভাগীয় পরিচালক মো. আশরাফুজ্জামান, বগুড়ার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মো. আব্দুল মালেক, পরিবেশ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক আখতরুজ্জামান টুকু, শাজাহানপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোছা. মাহমুদা পারভীন, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. জহুরুল ইসলাম, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. নাসিম রেজা, বগুড়া জেলা ইট প্রস্তুতকারক মালিক সমিতির সভাপতি আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ। 

আরও পড়ুন: গাজীপুরে ইয়াবাসহ ৩ মাদক কারবারি আটক

উচ্ছেদ অভিযানে সহায়তা করেন শাজাহানপুর থানা পুলিশ, এপিবিএন এবং ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা।

ওডি/ এফইউ            
 

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড