• শুক্রবার, ০৭ আগস্ট ২০২০, ২৩ শ্রাবণ ১৪২৭  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

সৈয়দপুরে সমিতির নামে চলছে সুদের ব্যবসা

  নীলফামারী প্রতিনিধি

১২ ডিসেম্বর ২০১৯, ২২:৩৯
অবিনশ্বর ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সমবায় সমিতি
অবিনশ্বর ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সমবায় সমিতি বই (ছবি : দৈনিক অধিকার)

নীলফামারীর সৈয়দপুরে সমবায় সমিতির নামে অনিয়মতান্ত্রিকভাবে ঋণ প্রদান করে কিস্তি আদায়ের মাধ্যমে চলছে রমরমা সুদের ব্যবসা। শতকরা ২০ টাকা থেকে ৩০ টাকা পর্যন্ত সুদ আদায়সহ বার্ষিক মেয়াদের পরিবর্তে মাসিক মেয়াদে সুদাসল আদায় করা হচ্ছে এ সমিতির মধ্যমে।

এতে স্থানীয় গ্রাহকরা এনজিওর আদলে গড়া এসব সমিতির খপ্পরে পড়ে অতিরিক্ত সুদ প্রদান এবং স্বল্প সময়ের ঋণ পরিশোধের ফলে পুঁজি হারিয়ে সর্বস্বান্ত হয়ে পড়ছে। সমবায় সমিতি হিসেবে রেজিস্ট্রেশন নেওয়া হলেও এক্ষেত্রে সমবায় আইন বা নিয়ম মানছে না প্রতিষ্ঠানগুলো। এমনকি সরকারি ছুটি ও সাপ্তাহিক ছুটি শুক্রবারেও তারা কিস্তি আদায় করছে। যা সম্পূর্ণভাবে আইন বিরুদ্ধ ও অবৈধ ব্যবসা।

সৈয়দপুর শহরের ইসলামবাগ এলাকায় রেলওয়ের পাওয়ার হাউস এর সামনে প্রধান অফিস খুলে 'অবিনশ্বর ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সমবায় সমিতি' কার্যক্রম পরিচালনা করছেন। অথচ ওই এলাকায় কোনো ব্যবসায়ীই নেই। যারা এই সমিতির সদস্য হবেন।

এ সমিতির মাধ্যমে নিজেদের এনজিও পরিচয় দিয়ে নামে বেনামে সদস্য সংগ্রহ করে কোনো রকমে ঋণ দেওয়া হচ্ছে। এক্ষেত্রে গ্রাহকদের কাছ থেকে প্রায় শতকরা ২০ থেকে ৩০ ভাগ পর্যন্ত সুদ আদায় করা হচ্ছে। ঋণের কিস্তি দৈনিক হারে উত্তোলন করাসহ সাপ্তাহিক ছুটি শুক্রবারসহ জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন দিবসে সরকারি ছুটির দিনেও আদায় করা হচ্ছে ঋণ ও সুদের কিস্তি।

এছাড়া তারা বার্ষিক মেয়াদের পরিবর্তে মাসিক বা ত্রৈমাসিক মেয়াদে ঋণ প্রদান করছে। যা সম্পূর্ণরূপে সমবায় আইন বা দেশের প্রচলিত বেসরকারি আর্থিক সংস্থার নিয়ম নীতির বহির্ভূত। এভাবে তারা অতিরিক্ত সুদ আদায় এবং সরকারি আইন ও নিয়ম ভঙ্গ করলেও স্থানীয় সমবায় অফিস এ ব্যাপারে কোনো পদক্ষেপ না নেওয়ায় গ্রাহকরা প্রতারণা শিকার হচ্ছেন এবং অতিরিক্ত সুদ প্রদানের মাধ্যমে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন।

কয়েকজন গ্রাহক জানান, অবিনশ্বর ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সমবায় সমিতির পরিচালক সুমন নিজেদের এনজিও পরিচয় দিয়ে অল্প সুদের অধিকহারে ঋণ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে আমাদের সদস্য করেছে। এরপর সঞ্চয় করার মাধ্যমে গচ্ছিত টাকা ফেরত না দিয়ে এর বিপরীতে আমাদের ঋণ নিতে বাধ্য করেছে। যা চক্রবৃদ্ধি হারে সুদ আদায়সহ মাত্র এক মাস বা তিন মাস মেয়াদে ঋণ পরিশোধ করতে বাধ্য করছে। এতে আমরা ঋণ নিয়ে চরম বিপদে পড়েছি। অথচ সদস্য করার সময় বলা হয়েছিল অন্যান্য এনজিও যেভাবে পরিচালিত হয় সেভাবেই পরিচালনা করা হবে এই সমিতি।

এ ব্যাপারে উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা মো. মশিউর রহমান জানান, সমবায় সমিতিগুলো কোনোভাবেই সমবায় আইনের বাইরে পরিচালিত হতে পারে না। তারা নিজস্ব কমিটি করে আইন বহির্ভূত কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছে। এদেরকে সরাসরি জেলা অফিস কর্তৃক রেজিস্ট্রেশন দেওয়ায় আমরা কোনো হস্তক্ষেপ করতে পারছি না। তবে এ সংক্রান্ত সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ওডি/এএসএল

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
jachai
nite
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
jachai

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড