• রবিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

মাঝ নদীতে আটকা পড়েছে ২০ পণ্যবাহী জাহাজ

  অধিকার ডেস্ক

০৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৩:৩৪
জাহাজ
নাব্যতা সংকটে যমুনায় আটকা পড়েছে প্রায় ২০টি পণ্যবাহী জাহাজ (ছবি : প্রতীকী)

প্রায় ২০টির মতো পণ্যবাহী জাহাজ আটকা পড়েছে যমুনা নদীতে। নাব্যতা সংকটের জন্য আটকা পড়া এসব জাহাজ মালামাল নিয়ে ভিড়তে পারছে না সিরাজগঞ্জের বাঘাবাড়ি ঘাটে। আর এ কারণেই সেসব জাহাজ থেকে লাইটারেজে করে রাসায়নিক সারসহ বিভিন্ন পণ্য আনা হচ্ছে বন্দরে। তবে বাঘাবাড়ি নৌবন্দর কর্তৃপক্ষ দাবি করছে, জাহাজে অতিরিক্ত পরিমাণ মালামাল নিয়ে আসার কারণেই মাঝ নদীতে আটকা পড়েছে এসব পণ্যবাহী জাহাজ।

নৌযান লেবার অ্যাসোসিয়েশনের বাঘাবাড়ি ঘাট শাখার যুগ্ম সম্পাদক আব্দুল ওয়াহাব মাস্টার জানিয়েছেন, এই নৌপথ দিয়ে জ্বালানি তেলবাহী ট্যাংকারের পাশাপাশি রাসায়নিক সারসহ বিভিন্ন পণ্যবাহী কার্গো জাহাজ চলাচল করে। ওই সব পণ্যবাহী কার্গো জাহাজগুলোর মাধ্যমে উত্তরাঞ্চলের মোট ১৬টি জেলায় জ্বালানি তেল, রাসায়নিক সারসহ অন্যান্য মালামাল সরবরাহ করা হয়। আবার একইভাবে উত্তরাঞ্চল থেকে বাঘাবাড়ি বন্দরের মাধ্যমে রাজধানী ঢাকাসহ বিভিন্ন জেলায় চাল ও গমসহ অন্যান্য পণ্যসামগ্রী পাঠানো হয়। 

তিনি বলেন, বর্তমানে এই নৌপথের প্রায় ছয়টি পয়েন্টে নাব্যতা সংকট মারাত্মক আকার ধারণ করেছে। আর এ কারণেই জাহাজগুলো সরাসরি বাঘাবাড়ি বন্দরে ভিড়তে পারছে না।

এ দিকে, বাঘাবাড়ি নৌ বন্দরের সহকারী পরিচালক এস এম সাজ্জাদুর রহমান জানান, বাঘাবাড়ি নদী বন্দর মূলত দ্বিতীয় শ্রেণির একটি বন্দর। বর্তমানে এই নৌরুটে নাব্যতা সংকট নেই। পাশাপাশি এই চ্যানেলে পানির গভীরতা রয়েছে প্রায় আট ফিট। তিনি দাবি করেন, পণ্যবাহী ওই জাহাজগুলোতে অতিরিক্ত মালামাল বহনের কারণে সরাসরি বাঘাবাড়ি ঘাটে পৌঁছাতে পারছে না। কাজেই সেগুলো যমুনার মাঝ নদীতে আটকা পড়ে থাকছে।

উল্লেখ্য, যমুনা নদীর নাকালিয়া, ঢালারচর এবং লতিফপুর পয়েন্টে প্রায় ২০টির মতো পণ্যবাহী জাহাজ আটকা পড়েছে। আটকা পড়া এসব পণ্যবাহী কার্গো জাহাজ রাসায়নিক সার, কয়লা, গম ও চাল নিয়ে সিরাজগঞ্জের বাঘাবাড়ি নৌবন্দরে যাচ্ছিল।

ওডি/আইএইচএন

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন সজীব 

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড