• রবিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২৬ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

গাজীপুরে নৌকায় ফেরি করে চলছে মাদকের কারবার

  গাজীপুর প্রতিনিধি

০৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ১১:৫০
গাজীপুর
অভিনব পদ্ধতিতে নৌকায় বসে নেশা করছে (ছবি : দৈনিক অধিকার)

গাজীপুরের শ্রীপুরের কাওরাইদ ইউনিয়নের সুতিয়া নদীতে নৌকা দিয়ে ফেরি করে চলছে গাঁজা ও ইয়াবার মরণ নেশার এক ভয়াবহ কারবার।

এলাকার কথিত মাদক সম্রাট আলমের নেতৃত্বে চলছে অভিনব পদ্ধতিতে নৌকায় বসিয়ে ইয়াবা ও গাঁজা সেবন।

উঠতি বয়সী ছেলেদের নেশা করার জন্য সে নৌকায় ফেরি করে পুলিশ এবং সাধারণ মানুষের চোখকে ফাঁকি দিয়ে নদীর মাঝখানে নিয়ে তাদের নেশা করাচ্ছে।

সুতিয়া নদীটি গাজীপুর এবং ময়মনসিংহ জেলার সীমান্তবর্তী একটি নদী। আর কথিত মাদক ব্যবসায়ী আলম এই সুযোগটিকেই কাজে লাগাচ্ছে। যখন শ্রীপুর থানার পুলিশ তাকে ধাওয়া করে তখন সে ময়মনসিংহ জেলার পাগলা থানা এলাকায় নৌকা নিয়ে চলে যায়। আবার পাগলা থানা পুলিশ ধাওয়া করলে সে শ্রীপুর সীমানায় চলে আসে।

মাদক সম্রাট আলম (৪০) শ্রীপুর উপজেলার কাওরাইদ ইউনিয়নের কালীবাড়ী এলাকার প্রয়াত জিন্নত আলীর ছেলে। সে সুতিয়া নদীতে নৌকায় ফেরি করে মাদক ব্যবসার মূল হোতা। পুলিশ তাকে কয়েকবার গ্রেফতার করলেও আইনের ফাঁক ফোকর দিয়ে জামিনে বেড়িয়ে এসে আবারও শুরু করছে ভয়াবহ মাদকের ব্যবসা।

কাওরাইদ ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য নুরুল ইসলাম জানান, মাদক ব্যবসার ঘটনাটি সত্য। আমরা এলাকার জনগণ নিয়ে এটা বন্ধ করার অনেক চেষ্টা করেছি। কিন্তু তারপরেও এটা বন্ধ করা সম্ভব হয়নি।

পাগলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহিনুজ্জামান জানান, এ বিষয়টি আমার জানা ছিল না, খোঁজ খবর নিয়ে আইনগত ব্যবস্থা নিচ্ছি।

শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি লিয়াকত আলী জানান, নৌকায় ফেরি করে মাদক কারবারের বিষয়টি আমার জানা নেই। খোঁজ খবর নিয়ে আইনগত ব্যবস্থা নিচ্ছি।

ওডি/এমবি

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন সজীব 

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড