• সোমবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ১ পৌষ ১৪২৬  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

বিরোধ নিষ্পত্তিতে নিজ কক্ষে সালিশ বসান পুলিশ কর্মকর্তা

  হবিগঞ্জ প্রতিনিধি

২০ নভেম্বর ২০১৯, ২২:২৭
নিজের কক্ষে বসে বিরোধ নিষ্পত্তি করছেন পুলিশ কর্মকর্তা
নিজের কক্ষে বসে বিরোধ নিষ্পত্তি করছেন পুলিশ কর্মকর্তা (ছবি : দৈনিক অধিকার)

মামলা কমাতে হবিগঞ্জে সালিশের মাধ্যমে বিরোধ নিষ্পত্তিতে অভিনব কৌশল গ্রহণ করেছেন এক পুলিশ কর্মকর্তা। হবিগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রবিউল ইসলাম বিরোধপূর্ণ পক্ষগুলোকে নিয়ে নিজের কক্ষে বসে উভয়ের কথা শোনেন এবং সাক্ষীদের সাক্ষ্য নেন। এরপর তা সেখানেই মীমাংসা করে দেন।

পুলিশ কর্মকর্তা মো. রবিউল ইসলাম এমনভাবে বিরোধ নিষ্পত্তি করেন উভয়পক্ষই তাতে সন্তুষ্ট থাকে। অনেক সালিশ করেন গল্পের ছলেও। যে কেউ দেখলে মনে করবেন, যেন কোনো গ্রাম্য মুরব্বি সালিশ করে দিচ্ছেন। সালিশে উভয়পক্ষের মুরব্বিদেরও পরামর্শ নেন তিনি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রবিউল ইসলাম জানান, মানুষের সমস্যাগুলোকে নিজের সমস্যা মনে করেই দেখি। তাদের সুখ-দুঃখের কথা মনোযোগ দিয়ে শুনি। মানুষ যখন তার ক্ষোভের কথা মন খুলে বলতে পারে তখন তার ক্ষোভ অনেকটাই কমে যায়।

তিনি বলেন, ছোটখাটো বিষয়ে মামলা মোকদ্দমায় মানুষ জড়িয়ে তার সহায়-সম্পদ সব নষ্ট করে। এগুলো আমাকে পীড়া দেয়। আদালতে দৌড়ে মানুষ সব নষ্ট করে। এমন তাড়না থেকেই আমি সালিশে বিরোধ নিষ্পত্তির উদ্যোগী হয়েছি। এতে পুলিশের প্রতিও মানুষের আস্থাও বাড়ে। এখন পুলিশকে ভয় নয়, আপন মনে করে মানুষ।

জানা গেছে, গত এক বছরে সদর, লাখাই ও শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলায় শতাধিক বিরোধ সালিশে নিষ্পত্তি করেছেন পুলিশ কর্মকর্তা। দিনরাত তিনি বিভিন্ন স্থানে চষে বেড়ান মানুষের বিরোধের খোঁজে। স্থানীয় কমিউনিটি পুলিশ, বিট পুলিশ কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি, গ্রাম্য মুরব্বিসহ বিভিন্ন পেশার মানুষের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখেন। তাদের মাধ্যমে বিরোধীয় পক্ষগুলোকে খুঁজে বের করে সালিশের আয়োজন করা হয়। 

এছড়া হাটবাজার, স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসায় সচেতনতামূলক সভা করেন। সব শ্রেণির মানুষের কাছে নিজের মোবাইল নম্বর ছড়িয়ে দেন। কেউ যেন কোনো বিরোধে জড়ালেই তাকে জানানো হয়। নির্ধারিত কোনো সোর্স নিয়োগ না করে স্থানীয় মানুষের সহায়তায় অপরাধ দমনে কাজ করছেন। এতে বেশ সাড়াও পাওয়া যাচ্ছে। মানুষও উৎফুল্ল হয়ে তাকে সহযোগিতা করে যাচ্ছে। 

ইতোমধ্যেই পুলিশ সুপার মো. রবিউল ইসলাম বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন মানুষের কাছে। আর স্থানীয় মানুষের সহায়তা নিয়ে ইতোমধ্যে ৩০ জন ডাকাত গ্রেফতার করেছেন। এছাড়াও পাঁচটি খুনের রহস্য উদ্ঘাটন করা হয়েছে। এগুলোর কোনো ক্লু ছিল না পুলিশের কাছে। 

ওডি/ এফইউ

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪, ০১৯০৭৪৮৪৮০০ 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড