• বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২৩ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

বিদ্যুৎহীন খুলনা, ভোগান্তিতে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ৪ লাখ গ্রাহক

  সারাদেশ ডেস্ক

১০ নভেম্বর ২০১৯, ২০:২৪
ঘূর্ণিঝড় বুলবুল
ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের তাণ্ডবে সড়কে ভেঙে পড়া গাছ (ছবি : দৈনিক অধিকার)

ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের তাণ্ডবে খুলনার দুইটি উপজেলার কয়েক হাজার গাছপালা ঝড়ে উপড়ে পড়ার পাশাপাশি বৈদ্যুতিক খুঁটি ভেঙে জেলাজুড়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি সাধিত হয়েছে। একদিকে যেমন গাছপালা ভেঙে পড়ে সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে পড়েছে, অপরদিকে বৈদ্যুতিক তার ছিঁড়ে ও খুঁটি ভেঙে পড়ে বিদ্যুৎবিহীন রয়েছে সমগ্র খুলনা জেলা। ফলে এসব এলাকাগুলোতে ভোগান্তিতে পড়েছেন প্রায় ৪ লাখ গ্রাহক।

খুলনা জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের আঘাতে খুলনার কয়রা ও দাকোপ উপজেলায় প্রায় তিন হাজার ২৬৫টি ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। এছাড়া পানিতে তলিয়ে গেছে সাত শতাধিক পুকুর ও মাছের ঘের। একইভাবে উপকূলবর্তী এই দুই উপজেলায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে কয়েক হাজার গাছপালা। এসব গাছপালা ভেঙে পড়ে বৈদ্যুতিক তার বিচ্ছিন্ন হয়ে সব মিলিয়ে প্রায় বিদ্যুৎবিহীন রয়েছে সমগ্র খুলনা জেলা। একইভাবে বৈদ্যুতিক তারের ওপরে গাছ উপড়ে জেলার ৯টি উপজেলাতেই বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। এমনকি খুলনা পৌর শহরেও প্রায় ১২ ঘণ্টা বিদ্যুৎ বিভ্রাট দেখা দেয়।

এ দিকে, রবিবার (১০ নভেম্বর) বিকালে খুলনা মহানগরীর বিদ্যুৎ সংযোগ মেরামত করা হলে প্রায় ৪০ ভাগ বিদ্যুৎ সংযোগ সচল হয়। তবে, এখন পর্যন্ত খুলনার ৯টি উপজেলায় এর সমাধান না হওয়ায় শনিবার (৯ নভেম্বর) রাত থেকে রবিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত বিদ্যুৎ বিভ্রাটের ভোগান্তিতে পড়েছেন এসব উপজেলার মানুষ।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, শনিবার রাত থেকে ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের তাণ্ডবে খুলনার বিভিন্ন জেলা বিদ্যুৎহীন হয়ে পড়ে। এর মধ্যে রবিবার বিকাল নাগাদ শহরাঞ্চলে বিদ্যুৎ ফিরে আসলেও জেলার গ্রাম ও উপজেলায় প্রায় ১৫ ঘণ্টা ধরেই বিদ্যুৎহীন রয়েছেন এসব গ্রাহক।

এ দিকে, বিদ্যুৎ সরবরাহ ব্যবস্থা ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় এখন পর্যন্ত বিভিন্ন এলাকায় পুনরায় সংযোগ স্থাপন করা সম্ভব হয়নি বলে জানিয়েছে খুলনার বিদ্যুৎ বিতরণ কর্তৃপক্ষ। তারা আরও জানান, শহরের অধিকাংশ স্থানেই বৈদ্যুতিক তারের ওপরে গাছ উপড়ে পড়ে রয়েছে। পাশাপাশি অনেক স্থানে বিদ্যুতের খুঁটিও উপড়ে পড়েছে। তবে, সম্ভাব্য দুর্ঘটনা এড়াতে অধিকাংশ এলাকায় পুনরায় সংযোগ স্থাপনে তাদের কাজ চলমান রয়েছে।

খুলনা, বরিশাল ও ঢাকা বিভাগের ২২টি জেলা নিয়ে গঠিত ওয়েস্ট জোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানির (ওজোপাডিকো) ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. শফিক উদ্দিন জানিয়েছেন, ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের আঘাতে পাঁচটি জেলার প্রায় ৪ লাখ মানুষ বিদ্যুৎহীন হয়ে পড়েছেন। সর্বমোট ৩২টি ফিডারের আওতায় এখন পর্যন্ত চালুর উপযোগী হয়েছে ১৫টি ফিডার। এছাড়া বাকি ফিডারের কাজও প্রায় শেষ পর্যায়ে চলে এসেছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

এ দিকে, খুলনা পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের সিনিয়র জেনারেল ম্যানেজার প্রকৌশলী মো. আলতাফ হোসেন জানান, ঘূর্ণিঝড়ে পল্লী বিদ্যুতের আওতাধীন অঞ্চলে একটি বড় অংশজুড়ে বিদ্যুৎ সরবরাহ ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। পাশাপাশি অনেক স্থানেই বৈদ্যুতিক ট্রান্সফরমার নষ্ট হয়েছে। এসব মেরামতে পল্লী বিদ্যুতের প্রায় পাঁচ শতাধিক কর্মী কাজ করছে। বর্তমানে তারা দাকোপ উপজেলায় কাজ করছেন। এ সময় কখন নাগাদ ক্ষতিগ্রস্ত এসব বিদ্যুৎ সংযোগ মেরামত সম্ভব, তা নির্দিষ্ট করে বলতে পারেননি তিনি।

উল্লেখ্য, সঠিকভাবে নিরূপণ সম্ভব না হলেও বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাবে প্রায় ৬০ হাজার কিলোমিটার বিদ্যুৎ বিতরণ লাইন বিভিন্ন মাত্রায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত এসব লাইন পুনরায় স্থাপনের পাশাপাশি মেরামতের কাজে প্রায় সাড়ে তিন হাজার কর্মী কাজ করছেন বলে জানা গেছে।

ওডি/আইএইচএন

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড