• বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ৩০ কার্তিক ১৪২৬  |   ২৫ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ক্রিকেট ম্যাচ নিয়ে বাজি : টাকা না পেয়ে বন্ধুকে খুন

  বরিশাল প্রতিনিধি

০৭ নভেম্বর ২০১৯, ২১:২৫
আসামি সুমন
আসামি সুমন ওরফে লাইলী সুমন (ছবি : দৈনিক অধিকার)

বাংলাদেশ-ভারত টি-২০ সিরিজের প্রথম ম্যাচ নিয়ে বাজি ধরে রূহুল আমিন (২৬) ও বন্ধু সুমন ওরফে লাইলী সুমন (২৪)। খেলায় শেষ পর্যন্ত হেরে যায় ভারত। খেলা শেষে বাজিতে সুমন ওরফে লাইলী সুমন জিতে গেলে বাজির ৮ হাজার টাকা রূহুল আমিনের কাছে চাই সে। কিন্তু এ সময় রূহুল আমিন টাকা ন দিয়ে চলে যায়। পরে ক্ষিপ্ত হয়ে সুমন কুপিয়ে হত্যা করে তার বন্ধু রূহুল আমিনকে। 

গ্রেফতার হওয়ার পর বুধবার (৬ নভেম্বর) আদালতে দেওয়া জবানবন্দিতে এ কথা জানিয়েছে সুমন। এ ঘটনায় মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মো. আনিছুর রহমান জবানবন্দি গ্রহণের পর সুমনকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। 

বরিশাল নগরীর আমানতগঞ্জ এলাকায় গত সোমবার (৪ নভেম্বর) বিকাল ৪টায় প্রকাশ্যে রূহুল আমিনকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলার একমাত্র আসামি সুমনকে পরদিন মঙ্গলবার (৫ নভেম্বর) পটুয়াখালী থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। 

বুধবার আদালতে দেওয়া জবানবন্দিতে সুমন জানায়, গত রবিবার বাংলাদেশ-ভারত টি-২০ ম্যাচ দেখার সময় ম্যাচের জয়-পরাজয় নিয়ে সে রূহুল আমিনের সঙ্গে ৮ হাজার টাকার বাজি ধরেছিল। বাজিতে সুমন জিতলে রূহুল টাকা না দিয়ে চলে আসে। পরদিন আমানতগঞ্জ কশাইবাড়ি পুল এলাকায় রুহুলের সঙ্গে তার দেখা হয়। এ সময় বাজির ৮ হাজার টাকা নিয়ে রূহুলের সঙ্গে তার ঝগড়া হয়। এক পর্যায়ে রূহুল সুমনকে থাপ্পড় দেয়। এতে উত্তেজিত হয়ে সুমন তার সঙ্গে থাকা চাকু দিয়ে রূহুলকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে পালিয়ে যায়। 

উল্লেখ্য, নিহত রূহুল ও ঘাতক সুমন উভয়ে আমানতগঞ্জ কশাইবাড়ি পুল এলাকার ভাড়াটিয়া বাসিন্দা। তারা এক সঙ্গে চলাফেরা করতো। 

ওডি/এএসএল

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড