• শুক্রবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮, ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২১ °সে
  • বেটা ভার্সন

আগামী সপ্তাহেই ৪০তম বিসিএস আবেদনের সময়সীমা শেষ  

  ক্যারিয়ার ডেস্ক ০৯ নভেম্বর ২০১৮, ০৯:০২

বিসিএস_অধিকার

বিসিএস দিতে আগ্রহী প্রার্থীরা আগামী সপ্তাহ পর্যন্ত ৪০তম বিসিএসে আবেদন করতে পারবেন। সাধারণ ক্যাডারে ৪৬৫টি পদের মধ্যে ২০০টি প্রশাসন ক্যাডার পদ, প্রফেশনাল/টেকনিক্যাল ক্যাডারে ৫৬৮টি পদ এবং শিক্ষা ক্যাডারে ৮৭০টি পদে নিয়োগ দেয়া হবে।

গত ১১ সেপ্টেম্বর (মঙ্গলবার) দুপুরের দিকে পিএসসির ওয়েবসাইটে সরকারী কর্ম কমিশন (পিএসসি) ৪০তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। বিজ্ঞপ্তি অনুসারে ৩০ সেপ্টেম্বর সকাল ১০টা থেকে শুরু হয়ে ১৫ নভেম্বর সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত বিসিএসের আবেদন চলবে। 

পিএসসি সূত্রে জানা গেছে, এই বিসিএসের মাধ্যমে মোট ১,৯০৩টি পদে নিয়োগ দেয়া হবে। 

পিএসসির চেয়ারম্যান মো. সাদিক সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, ৪০তম বিসিএসে ১ হাজার ৯০৩ জন ক্যাডার নেওয়া হবে। শিক্ষা ক্যাডারে সর্বাধিক ৮৭০টি পদে নিয়োগ দেয়া হবে। এই নিয়োগের ক্ষেত্রে কোটা বিষয়ে সরকারের সর্বশেষ গ্রহণ করা সিদ্ধান্তই গৃহীত হবে। 

প্রার্থীরা অনলাইনে পিএসসির ওয়েবসাইটের বিপিএসসি-১ ফরম পূরণের মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন। আবেদন করার সময় ৩০০x৩০০ পিক্সেলের রঙ্গিন ছবি এবং ৩০০x৮০ পিক্সেল আকারের স্বাক্ষরের স্ক্যান কপি আপলোড করতে হবে। 

অনলাইনের আবেদন ফরম পুরণ করার পর প্রাপ্ত ইউজার আইডি ব্যবহার করে টেলিটক মোবাইলের মাধ্যমে ৭০০ টাকা আবেদন ফি জমা দিতে হবে। তবে প্রতিবন্ধী, ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী ও তৃতীয় লিঙ্গের প্রার্থীদের ক্ষেত্রে আবেদন ফি ১০০ টাকা।  

এই বিসিএসে ১১০০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষা দিতে হবে। এর মধ্যে সাধারণ ক্যাডারদের জন্য বাংলায় ২০০, ইংরেজিতে ২০০, বাংলাদেশ বিষয়াবলিতে ২০০, আর্ন্তজাতিক বিষয়াবলিতে ১০০, গাণিতিক যুক্তি ও মানসিক দক্ষতায় ১০০, সাধারণ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে ১০০  নম্বর এবং মৌখিক পরীক্ষায় ২০০ নম্বর থাকবে।এই বিসিএস থেকেই বাংলাদেশ বিষয়াবলির লিখিত পরীক্ষার ২০০ নম্বরের মধ্যে  মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ে ৫০ নম্বর রাখা হবে। 

২০০ নম্বরের একটি লিখিত এমসিকিউ প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। পরীক্ষার সময় থাকবে ২ ঘণ্টা। এ পরীক্ষায় বাংলা ভাষা ও সাহিত্যে ৩৫ নম্বর, ইংরেজি ভাষা ও সাহিত্যে ৩৫, বাংলাদেশ বিষয়াবলি ও আন্তর্জাতিক বিষয়াবলিতে ২০, ভূগোল ( বাংলাদেশ ও বিশ্ব), পরিবেশ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় ১০, সাধারণ বিজ্ঞান ১৫, কম্পিউটার ও তথ্য প্রযুক্তি ১৫, গাণিতিক যুক্তি ১৫, মানসিক দক্ষতায় ১৫, নৈতিকতা মূল্যবোধ ও সুশাসন বিষয়ে ১০ নম্বরের  প্রশ্ন থাকবে।  

টেকনিক্যাল ক্যাডারদের জন্য বাংলায় ১০০, ইংরেজিতে ২০০, বাংলাদেশ বিষয়াবলিতে ২০০, আর্ন্তজাতিক বিষয়াবলিতে ১০০, গাণিতিক যুক্তি ও মানসিক দক্ষতায় ১০০, সংশ্লিষ্ট পদ বা সার্ভিসের জন্য প্রাসঙ্গিক বিষয়ে ২০০ নম্বর এবং মৌখিক পরীক্ষায় ২০০ নম্বর থাকবে। কেউ চাইলে ইংরেজিতেও বিসিএস পরীক্ষা দিতে পারবেন। 

পিসিএস সূত্র আরও জানায়, ৪০তম বিসিএস লিখিত পরীক্ষার খাতা ২ জন পরীক্ষক দ্বারা মূল্যায়ন করা হবে। যদি পরীক্ষার্থীর নম্বরের ব্যবধান ২০ শতাংশের বেশি হয়, তাহলে পরীক্ষার খাতা তৃতীয় পরীক্ষকের কাছে পাঠানো হবে। এর ফলে পরীক্ষার্থীদের মেধার যথাযথ মূল্যায়ন হবে।

উল্লেখ্য, ৩৯তম বিশেষ বিসিএস পরীক্ষায় আবেদনকৃত মোট ৩৯ হাজার ৯৫৪ জন প্রার্থীর মধ্যে লিখিত পরীক্ষায় সহকারী সার্জন পদে ১৩ হাজার ২১৯ জন এবং সহকারী ডেন্টার সার্জন পদে ৫৩১ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। এই বিসিএসে ৪ হাজার ৫৪২ জন সহকারী সার্জন ও ২৫০ জন সহকারী ডেন্টাল সার্জনসহ মোট পাঁচ হাজার চিকিৎসক নেয়া হবে। উত্তীর্ণদের মৌখিক পরীক্ষার সময় খুব দ্রুত ঘোষণা করা হবে। 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড