• বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ৭ কার্তিক ১৪২৬  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

বিপিএলে ঘনঘন নিয়ম পরিবর্তনের সমালোচনা করলেন মুডি-জয়াবর্ধনে

  ক্রীড়া ডেস্ক

০৮ আগস্ট ২০১৯, ১৯:১১
টম মুডি
বিপিএলে রংপুর রাইডার্সের কোচ টম মুডি (ছবি : সংগৃহীত)

বিপিএলকে আইপিএলের পর সেরা টি-টুয়েন্টি ফ্যাঞ্চাইজি লিগ বলে দাবি করেন বিপিএল পরিচালনা কমিটি। তবে প্রতি বছরে নতুন নতুন নিয়ম তৈরি করে এ টুর্নামেন্টকে বারবার সমালোচনায় ফেলেন তারা।ক্রিকইনফোতে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বিপিএলের এই নিয়ম পরির্তনের সমালোচনা করলেন টম মুডি ও মাহেলা জয়াবর্ধনে। মুডি রংপুর রাইডার্সের কোচ, আর খুলনা টাইটানসের কোচ জয়াবর্ধনে। 

প্রথম আসর থেকে নিয়ম সংক্রান্ত নানা জটিলতায় ব্যস্ত থাকে বিপিএল কমিটি। এবারও তার ব্যতিক্রম হয়নি। ঢাকা ডায়নামাইটস ছেড়ে সাকিব আল হাসান রংপুর রাইডার্সে আসার পর শুরু হয় বিপিএল কমটির নিয়মের নাটক। এক সপ্তাহ পর চার আগস্ট বিসিবিতে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, এভাবে দল বদল করা নিয়মসিদ্ধ নয়। কারণ তাদের মতে, বর্তমানে সব দলকে চার বছরের জন্য নতুন চক্রের আওতায় যেতে হবে। তারপরই দলবদল হবে। বিসিবি পরিচালক মাহবুবুল আনাম বলেন, ‘নতুন চক্রের চুক্তিপত্র যেহেতু এখনো সাক্ষর হয়নি, ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর দলবদলকে আমরা স্বীকৃতি দিতে পারব না’। 

অথচ গত ১১ মে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর কাছে বিসিবি চিঠি পাঠিয়েছিল নতুন মৌসুমের কথা চিন্তা করে প্রস্তুতি নিতে। ক্রিকইনফোর প্রতিবেদনে উঠে এসেছে, অনেক ফ্র্যাঞ্চাইজি কর্মকর্তা বলেছেন চুক্তি নবায়ন কেবল আনুষ্ঠানিকতা। বরং ডিসেম্বরে টুর্নামেন্টের জন্য প্রস্তুতি নেওয়াটাই বেশি গুরুত্বপূর্ণ ছিল। 

জয়াবর্ধনে ও মুডি দুইজনই বিপিএলের সঙ্গে জড়িত আছেন অনেক দিন ধরে। বিপিএল কমিটির বার বার নিয়ম পরিবর্তনে বেশ বিরক্ত তারা। ২০১৭ সালে টম মুডির অধীনে রংপুর রাইডার্স বিপিএলের শিরোপা জেতে। আইপিএলেও সানরাইজার্স হায়দরাবাদের শিরোপা জয়ী কোচ এ অস্ট্রেলিয়ান। 

তিনি বলেন, ‘গত ১২ বছরে অনেক টি-টোয়েন্টি লিগের সঙ্গে জড়িত ছিলাম। এতে একটা জিনিস পরিষ্কার ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর জন্য খেলার কন্ডিশন ও নিয়মে ধারাবাহিকতা রাখাটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।’

শুধু দলই নয়, সমর্থকদের কথা চিন্তা করেও বিপিএলকে প্রশ্নের মুখে না ফেলার জন্য আহ্বান জানিয়ছেন অস্ট্রেলিয়ার হয়ে দুইটি বিশ্বকাপজয়ী তারকা। ‘এটা শুধু ফ্র্যাঞ্চাইজি বা ম্যানেজমেন্টের জন্য গুরুত্বপূর্ণ না। সমর্থকদের জন্যও এটা গুরুত্বপূর্ণ কারণ তাদেরও জানতে হবে স্থানীয় বা আন্তর্জাতিক কোন ক্রিকেটারদের অনুসরণ করবে তারা। যদি নিয়মিত, ইচ্ছেমতো নিয়ম বদলে ফেলা হয়, তবে স্থানীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে প্রতিযোগিতার মান নিয়ে প্রশ্ন উঠবে।’

নিয়ম পরিবর্তনকে অন্যায় হিসেবে দেখছেন আরেক কোচ মাহেলা জয়াবর্ধনে। তিনি বলেন, ‘দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা থাকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ, প্রতি বছর এবং টুর্নামেন্ট চলার সময়ই এভাবে নিয়ম বদলানো কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটের জন্যই ভালো না। বিশ্বের আর সব টুর্নামেন্টেই নিয়মগুলো ঠিক থাকে এবং সব ফ্র্যাঞ্চাইজি এ নিয়ে সন্তুষ্ট থাকে।’

আগের মৌসুমগুলোতে প্রায় সব আইকন নিজে দলবদল করেছেন। সে হিসেবে সাকিব আইকন দলবদল করতে পারেন। ২০১৬ সালে মাশরাফি বিন মর্তুজা ও মুশফিকুর রহিম দল বদল করেন। এবারও তামিমের খুলনায় ও মুশফিকের কুমিল্লায় যোগ দেওয়ার কথা শোনা যায়।  

সাকিব ঢাকা ডায়নামাইটস ছেড়ে আসার আগে নতুন নিয়মের কথা মনে ছিল না বিপিএল কমটির। রংপুর রাইডার্সে সাকিব চুক্তিবদ্ধ হওয়ার পর বিসিবি সবাইকে ডেকে জানিয়েছে নতুন নিয়মের কথা। ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো আগে বিভিন্ন গণমাধ্যমকেও জানিয়েছে এটি বিশেষ দলকে সুযোগ করে দিতে বারবার নিয়ম পরিবর্তন করা হয়।

ঢাকা ডায়নামাইটস কর্তৃপক্ষের প্রতিষ্ঠানে চাকরি করেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান ও বোর্ড পরিচালক আই এইচ মল্লিক, ঢাকার খালেদ মাহমুদ সুজনও বিবিবির বোর্ড পরিচালক। তাই ঢাকা ডায়নামাইটসের দিকেই চোখ থাকে বিপিএল কমটির। 

ওডি/এনএ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড