• শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০১৯, ৪ শ্রাবণ ১৪২৬  |   ৩৩ °সে
  • বেটা ভার্সন

তামিমের সেঞ্চুরিতে ঢাকাকে ২০০ রানের লক্ষ্য দিল কুমিল্লা

  অধিকার ডেস্ক    ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২০:৩১

তামিম ইকবাল
তামিম ইকবাল (ছবি : ফাইল)

ফাইনালের আগে গণমাধ্যমের কাছে তামিম ইকবাল জানিয়েছিলেন, চলতি বিপিএলে নিজের পারফরম্যান্স নিয়ে একেবারে অখুশি না হলেও নামের পাশে দেখতে চান ৪০০ রান। ভালো শুরুকে বড় ইনিংসে রূপান্তর করতে চান। সেই স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করার জন্য বিপিএলের ফাইনালের চেয়ে বড় মঞ্চ তো আর হয় না!

হ্যাঁ, তামিম নিজেকে দেওয়া কথা রেখেছেন। বিপিএলের ষষ্ঠ আসরের ফাইনালে খেলেছেন ৬১ বলে ১৪১ রানের অতিমানবীয় ইনিংস। ইনিংসের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত ব্যাট করে অপরাজিত থেকে মেরেছেন ১০টি চার ও ১১টি ছয়। তার ব্যাটিং তাণ্ডবে শুক্রবার মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৩ উইকেটে ১৯৯ রান তুলেছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। ফলে ফাইনালের মাঝপথেই কিছুটা চাপে পড়ে গেছে তাদের প্রতিপক্ষ সাকিব আল হাসানের ঢাকা ডায়নামাইটস। কেননা শিরোপা জিততে ঠিক '২০০' রান ছুঁতে হবে তাদের!

৩১ বলে হাফসেঞ্চুরি ছোঁয়ার আগেই দুবার জীবন পাওয়া তামিম তিন অঙ্কে পৌঁছেছেন ঠিক ৫০ বলে। ১৫তম ওভারের শেষ বলে রুবেল হোসেনকে ছয় হাঁকিয়ে ৯০-এর ঘরে প্রবেশ করেন তিনি। পরের স্ট্রাইক পান এক বল। এরপর ১৭তম ওভারে আন্দ্রে রাসেলের প্রথম ডেলিভারিতে আবারও ছয় মেরে পৌঁছে যান ৯৯তে। পরের বল দেন ডট। তৃতীয় বলে ডিপ মিডউইকেটের উপর দিয়ে বল সীমানা ছাড়া করে পেয়ে যান কাঙ্ক্ষিত সেঞ্চুরি।

ক্রিস গেইলের পর দ্বিতীয় ক্রিকেটার হিসেবে বিপিএলের ফাইনালে সেঞ্চুরি পাওয়ার পর আরও আগ্রাসী হয়ে ওঠেন ২৯ বছর বয়সী তামিম। মুখোমুখি হওয়া পরের ১১ বলেই করেন ৩৮ রান! তামিমের মারমুখী মেজাজের পাশে তার সতীর্থদের ভূমিকা ছিল শুধুই দর্শকের! ৯ রানে এভিন লুইসের উইকেট হারানো কুমিল্লা দ্বিতীয় উইকেটে পায় ৫৫ বলে ৯১ রানের জুটি। তাতে এনামুল হক বিজয়ের অবদান মাত্র ২৪! তাও জাতীয় দলের বাইরে থাকা এই তারকা খেলেছেন ৩০ বল!

তিন বলের ব্যবধানে আম্পায়ারের ভুল সিদ্ধান্তে এনামুল এবং রান আউট হয়ে শামসুর রহমান (০) ফিরে গেলে কুমিল্লাকে চেপে ধরার সুযোগ পেয়েছিল ঢাকা। কিন্তু তামিম তখন রুদ্রমূর্তি ধারণ করেছেন। তাকে থামানো তো অসম্ভব! ঢাকার বোলারদের কচুকাটা করে চতুর্থ উইকেটে অধিনায়ক ইমরুল কায়েসের সঙ্গে ৪৬ বলে পাক্কা ১০০ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়ে দলীয় সংগ্রহ ২০০ রানের দোরগোড়ায় নিয়ে যান তামিম। এই জুটিতে ইমরুলের রান তোলার ভূমিকা ছিল দৃষ্টিকটু! হাতে উইকেট আর তামিমের হাত খুলে ব্যাটিং সত্ত্বেও ২১ বল খেলে মোটে ১৭ রান নিয়ে মাঠ ছাড়েন এই বাঁহাতি!

ইনিংসের প্রথম দশ ওভারে তামিমকে নিয়ন্ত্রণের মধ্যে রাখতে পেরেছিলেন ঢাকার সাকিব-রাসেল-রুবেলরা। তাতে কুমিল্লা তুলতে পেরেছিল ১ উইকেটে ৭৩ রান। কিন্তু পরের দশ ওভারে এক সুনীল নারিন (৪ ওভারে ১৮ রান) ছাড়া কেউই সুবিধা করতে পারেননি। ফলে ১২৬ রান যোগ করেছে কুমিল্লা।

সংক্ষিপ্ত স্কোর :

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স : ১৯৯/৩ (২০ ওভারে) (তামিম ১৪১*, লুইস ৬, এনামুল ২৪, শামসুর ০, ইমরুল ১৭*; রাসেল ০/৩৭, রুবেল ১/৪৮, সাকিব ১/৪৫, নারিন ০/১৮, অনিক ০/১৯, শুভাগত ০/১৪, মাহমুদুল ০/১২)।

এসএইচ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড