• শুক্রবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১০ ফাল্গুন ১৪২৫  |   ২০ °সে
  • বেটা ভার্সন

গ্রন্থমেলার খবর

দর্শনার্থীদের পদচারণায় মুখর গ্রন্থমেলার সারাবেলা

  অধিকার ডেস্ক    ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১:০০

ছবি
ছবি : গ্রন্থমেলা-২০১৯

অমর একুশে গ্রন্থমেলার নবম দিন ছিলো গতকাল (৯ ফেব্রুয়ারি)। ছুটির দিন থাকায় গ্রন্থমেলা শুরু হয় সকাল ১১টা থেকে। চলতে থাকে রাত নয়টা পর্যন্ত। মেলায় ছিলো শিশুপ্রহর। শিশুপ্রহর সকাল ১১টা থেকে দুপুর একটা পর্যন্ত ছিলো। প্রতিদিনের মতো গ্রন্থমেলায় গতকালও নতুন বই এসেছে ২১৮টি।  

মেলার নবম দিনে পাঠকদের ভিড় ছিলো লক্ষ্যণীয়। পরিচিত লেখকদের পাশাপাশি প্রিয় লেখকদের বই সংগ্রহ করতে দেখা যায় পাঠকদের।

গতকাল গ্রন্থমেলায় আসা গ্রন্থগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো, সারমিন ইসলাম রত্নার শিশু-কিশোর গল্প ‘তাহিয়ানের যত মজার কাণ্ড’। আরিফ নজরুল এর প্রবন্ধ ‘ঢাকার বাইজি উপাখ্যান’। হিমু মোহম্মদের গল্প ‘অনামিকা আততায়ী হও’। জাহিদ নেওয়াজ খান এর কিশোর উপন্যাস ‘ম্যাজিক মোবাইল’। চানক্য বাড়ৈর উপন্যাস ‘কাচের মেয়ে’। হাসান তায়েবা চৌধুরীর প্যারাসাইকোলজি গ্রন্থ ‘যুগল মানব’সহ অন্যান্য।

এছাড়াও এসেছে গল্পগ্রন্থ ৪৪টি। উপন্যাস ৩২টি। প্রবন্ধ ১২টি। কাব্যগ্রন্থ ৬৪টি। গবেষণামূলক গ্রন্থ ৫টি। ছড়াগ্রন্থ ৪টি। শিশুতোষ গ্রন্থ ৮টি। জীবনী গ্রন্থ ৯টি’সহ অন্যান্য গ্রন্থ। 

গতকাল বিকেল চারটায় গ্রন্থমেলায় অনুষ্ঠিত হয় বুদ্ধিজীবী আবদুল হক এর জন্মশতবর্ষ শ্রদ্ধাঞ্জলি শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সুব্রত বড়ুয়া। আলোচনা অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ সৈয়দ আজিজুল হক, অজয় দাশগুপ্ত, সোহরাব হাসান এবং আহমাদ মাযহার।

সভাপতির বক্তব্যে সুব্রত বড়ুয়া বলেন, ‘আবদুল হক একজন সত্যসন্ধ বুদ্ধিজীবী। তার নাট্যরচনা, অনুবাদ, দিনলিপি, প্রবন্ধ গবেষণা-সবকিছুর মধ্যেই বড় করে প্রতিভাত হয়েছে দেশপ্রেম, উদার মানবিকতা এবং নিরাপোষ মনোভাব। জন্মশতবর্ষে তাঁকে নিয়ে নতুন করে আলোচনার অবকাশ রয়েছে।’ 

এছাড়াও গ্রন্থমেলায় লেখক বলছি অনুষ্ঠানে নিজেদের নতুন প্রকাশিত গ্রন্থ বিষয়ে আলোচনায় অংশ নেন মাহবুব সাদিক, মাহবুব আজিজ, মারুফ রায়হান, কুমার চক্রবর্তী এবং পাপড়ি রহমান। 

সন্ধ্যায় বাংলা একাডেমিতে অনুষ্ঠিত হয় আবৃত্তি অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানে আবৃত্তি করেন বেলায়েত হোসেন এবং অনন্যা লাবণী পুতুল।

উল্লেখ্য, গতকাল সকাল ১০টায় একাডেমি প্রাঙ্গণে শিশু-কিশোর সংগীত প্রতিযোগিতার প্রাথমিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে ক-শাখায় ৮০জন, খ-শাখায় ১০৮ জন প্রতিযোগী অংশগ্রহণ করেন। অনুষ্ঠানে বিচারক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এ. এম. এম. মহিউজ্জামান চৌধুরী, ইয়াকুব আলী খান এবং ড. সাইম রানা। একই সাথে শিশু-কিশোর সাধারণ জ্ঞান ও উপস্থিত বক্তৃতা প্রতিযোগিতার প্রাথমিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড