• শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২৩ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

বাঙালি শিল্পীর চিত্রপটে বর্ষার রূপ

  বাপ্পী লিংকন রায়

২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১১:৩৩
প্রদর্শনী
ছবি : লেখক

রূপ লাবণ্যময়ী ঋতু বর্ষা। সকল বয়সের মানুষের মনে হিম বিশ্লেষণ ঘটানোর জন্য বর্ষাই একমাত্র। বর্ষা আসে আষাঢ়-শ্রাবণ (জুনের মাঝ থেকে আগস্টের মাঝ) মাসে কালো মেঘে। এর সঙ্গে পরিবর্তন হয় আমাদের মনের, প্রকৃতি, দিন-রাত, সর্বোপরি সবকিছু। বর্ষার ঐশ্বরিক সৌন্দর্য প্রথম দিন থেকে শেষ দিন পর্যন্ত নানাভাবে প্রকাশ পায়। 

বর্ষা যেমন প্রকৃতি ও নদীর প্রাণ-যৌবন এনে দেয়; আবার অতি বর্ষণে বন্যার আগ্রাসী রূপও কম নয়। তবে বর্ষার আগমন বাংলার শিল্পপ্রেমীদের অতি প্রাচীনকাল থেকেই উজ্জীবিত করেছে। শিল্পের সকল শাখাই বর্ষা নিয়ে নানা কবিতা, গান, নাটক কিংবা চিত্র রচনা হয়েছে। 

সমকালীন নবীন ও বরেণ্য শিল্পীদের নিয়ে বর্ষার অনুভূতি প্রকাশ করতে “বর্ষা/ রিদম অব মুনসুন” শিরোনামের প্রদর্শনী। ২৯ জন শিল্পী একত্রে প্রদর্শনী করা সত্যিই বড় ব্যাপার; তবে চিত্রগুলোর সমন্বয় বর্ষার শৈলী ও প্রাণময়তার অনাবিল মেলবন্ধন সৃষ্টি করেছে। 

শিল্পাঙ্গন গ্যালারির একাদশ বার্ষিক দলগত প্রদর্শনীর প্রবীণ বরেণ্য শিল্পীরা হলো- 

শিল্পী হামিদুজ্জামান খান, আব্দুস শাকুর, বীরেন সোম, শহীদ কবির, অলোকেনা ঘোষ, কনকচাঁপা চাকমা, জামাল আহমেদ প্রমুখ শিল্পী। 

বরেণ্য শিল্পীদের সঙ্গে রয়েছে সমকালীন তরুণ ২২ জন শিল্পী। তারা হলো- শিল্পী কুন্ডল বাড়ই, আহমেদ শামসুদ্দোহা, আনিসুজ্জামান, এ.এইচ. ঢালী তমাল, অনুকুল মজুমদার, অভি সংকার আইন, আমজাদ আকাশ, আজমির হোসেন, বিপ্লব চক্রবর্তী, কারু তিতাস, কৃতি রঞ্জন বিশ্বাস, কামরুজ্জোহা, এম. আল আখির সরকার, রেজওয়ান নবি, রশিদ আমিন, শেখ আফজল হোসেন, সিমা ইসলাম, সৌরভ চৌধুরী, সাদেক আহমেদ, সায়মল বিশ্বাস, সাইদা সুলতানা, তরুণ ঘোষ প্রমুখ। 

শিল্পী কুন্ডল বাড়ইয়ের চিত্রের শিরোনাম “ফ্লাওয়ার আফটার দ্যা রেইন”। ক্যানভাসে করা এই কাজে একটি বড় মৃৎপাত্র লক্ষণীয়। যার বুনট ও ফর্মের গভীরতা প্রকাশ্যে কাগজের মন্ড ব্যবহার হয়। বর্ণ ব্যবহারের মিতব্যয়িতার কারণে ও চিত্রপটের নিম্নভাগের রেখাধর্মীতা বর্ষারই আভাস দেয়। এটি দর্শনে মানসিক ঔৎকর্ষ ও পরম আনন্দের বোধের জন্ম দেয়। 

শিল্পী আজমির হোসেনের কাজ জল রঙে করা লম্বধর্মী। মেঘলা আকাশ ও সবুজ তৃণ ভূমির উপর রাখাল ও ধেণু। চিত্রের সাধারণ বিষয় হলেও তার জাদুময়ী রং ব্যবহারী গুণে চিত্র যেন জীবন্ত হয়ে আছে। 

শিল্পী এ. এইচ ঢালী তমাল চারকোল মাধ্যমে করছে “ভিজা কাক” শিরোনামের শিল্পকর্ম। কাকটি যেন নগর জীবনের চিহ্ন হিসেবে এক ফালি রোদের অপেক্ষায়। 

শিল্পী অনুকুল মজুমদার, কামরুজ্জামান, সাদেক আহমেদ ও এমডি আল আখির সরকার এর কথা না বললে নয়। তাদের প্রত্যেকের কাজই অতি সুন্দর, নান্দনিক ও সৃজনশীল। অন্য যেসকল শিল্পীরা অংশগ্রহণ করেছে তাদের চিত্রকর্ম ও প্রশংসনীয়। বরেণ্য শিল্পীদের মধ্যে শুধু অলোকেশ ঘোষ ও কনকচাঁপা চাকমার কাজে বর্ষার আবেগময়তা পাওয়া যায়। 

শিল্পকর্ম হলো অনুভূমির মিতব্যয়িতার প্রকাশ। তা দর্শন ও শিল্প রসিক কতটা গ্রহণ করছে, কতটা অনুভব করছে, এটা সময় বলে দিবে। 

“বর্ষা” শিরোনামে দলগত প্রদর্শনীটি চলবে আগামী ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ পর্যন্ত। 

প্রদর্শনীর সময় প্রতিদিন বেলা- ৩:০০ থেকে রাত ৮টা। 

প্রদর্শনীটি দর্শকদের জন্য উন্মুক্ত। 

স্থান- শিল্পাঙ্গন গ্যালারি

বাসা-২/৮(৫ম তলা), ব্লক-ডি, লালমাটিয়া , মোহাম্মদপুর, ঢাকা। 

ওডি/এনএম

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন সজীব 

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড