• রবিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

শাহী ঈদগাহে শুটিং করে ক্ষমা চাইল কানন ফিল্মস

  নিজস্ব প্রতিবেদক

০৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ১২:০৪
সিনেমা
সিনেমার সেই দৃশ্যের শুটিং (ছবি : সংগৃহীত)

সিলেটের ঐতিহাসিক শাহী ঈদগাহে সিনেমার শুটিং করতে গিয়ে ক্ষমা চাইতে হলো নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ‘কানন ফিল্মস’ কর্তৃপক্ষকে। গত ২৮ নভেম্বর ‘ইত্তেফাক’ নামের সিনেমার একটি দৃশ্যের শুটিং হওয়া নিয়ে ওই এলাকায় বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়। এরই প্রেক্ষিতে ফিল্ম কর্তৃপক্ষ দুঃখ প্রকাশ করে ধর্মপ্রাণ সিলেটবাসীর কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করেছে।

মঙ্গলবার (৩ ডিসেম্বর) গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে শুটিংয়ের বিষয় নিয়ে তাদের বক্তব্য উপস্থাপন করে ‘কানন ফিল্মস’।

সিনেমাটির পরিচালক ও প্রযোজক রায়হান রাফি সংবাদ বিজ্ঞপ্তি প্রেরণের বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন।

ওই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, শাহী ঈদগাহে যে দৃশ্য ধারণ করা হয়, সেটি ছিল নামাজের। ঈদগাহ ইসলাম ধর্মের একটি পূণ্যময় স্থান। একজন তরুণ অন্ধকার থেকে আলোর পথে, ইসলাম ধর্মের পথে ফিরে আসাকে তুলে ধরতেই মূলত পূণ্যময় এই স্থানকে বেছে নেওয়া হয়। এখানে দুই রাকাত নামাজের একটি দৃশ্য ধারণ করা হয়। এভাবে একজন মানুষ অন্ধকার থেকে আলোর পথে ফিরে আসায় পূর্ণাঙ্গতা ও ধর্মীয় মাধুর্যতা দেখানো হয়েছে। কোনোভাবেই সেখানে নাচ-গান বা সিনেমার অন্য কোনো দৃশ্য ধারণ করা হয়নি। এর প্রশ্নই আসে না। আমরাও মুসলিম এবং ধর্মপ্রাণ মুসলমান। ঈদগাহের মতো একটি পূণ্যময় ইবাদতখানার মর্যাদা রক্ষায় আমরা আন্তরিক। সেখানে এমন কিছু হোক যাতে ঈদগাহের পবিত্রতা নষ্ট হয়, তা আমরা করার স্পর্ধা দেখাব না।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, এই ঘটনাকে প্রচার করা হয়েছে অন্যভাবে। কোনো কোনো পত্রিকা ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বলা হয়েছে, শুটিংয়ের সময় সেখানে নাচ-গানের দৃশ্য ধারণ করা হয়েছে। যা প্রকৃত ঘটনার সম্পূর্ণ বিপরীত। এ রকম প্রচারণার কারণে সিলেটের ধর্মপ্রাণ মুসলমানের মনে আঘাত লেগেছে। তারা ক্ষুব্ধ হয়েছেন। আমরাও মনে করি, যেভাবে বলা হয়েছে, সেভাবে ঈদগাহকে ব্যবহার করা হলে, ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের মনে আঘাত লাগারই কথা। তারা ক্ষুব্ধই হবেন। কিন্তু আসল ঘটনা তা নয় বলে আমরা মর্মাহত হয়েছি। নামাজের দৃশ্য মসজিদ বা ঈদগাহে হলে সেটিই প্রকৃত মর্ম উপস্থাপন করবে- এমনটি মনে করেই মূলত ঈদগাহে শুধু তিন মিনিটের নামাজের একটি দৃশ্য ধারণ করা হয়। এমন কি আমরা ঈদগাহের পবিত্রতা রক্ষার স্বার্থে জুতা খুলেও প্রবেশ করেছি।

ফিল্ম কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, নামাজের দৃশ্য ধারণের শুটিংয়ের জন্য ঈদগাহ ব্যবহার করায় শাহজালাল-শাহপরাণ (র)-এর স্মৃতিবিজড়িত সিলেটের ধর্মপ্রাণ মুসলিম সমাজ আমাদের উপর ক্ষুব্ধ হলে বা ধর্মীয়ভাবে আঘাত পেলে আমরা আন্তরিকভাবে দুঃখিত, মর্মাহত এবং ক্ষমাপ্রার্থী। আমরা মনে করি, এ রকম একটি ধর্মীয় স্থাপনার পবিত্রতা রক্ষায় সব সময় সবার সচেষ্ট থাকা উচিত। আমাদের কারণে পূণ্যভূমি সিলেটে কোনো রকম বিরূপ পরিস্থিতির সৃষ্টি হোক তা আমাদের কাম্য নয়। এ নিয়ে যাতে সে রকম কোনো পরিস্থিতির সৃষ্টি না হয় এজন্য সবার সদয় ও সুদৃষ্টি কামনা করছি।

প্রসঙ্গত, গত ২৮ নভেম্বর ‘ইত্তেফাক’ নামক সিনেমার একটি দৃশ্যের শুটিংয়ের জন্য কানন ফিল্মস সিলেটের শাহী ঈদগাহে যায়।

ওডি/টিএএফ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন সজীব 

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড